পুষ্টি

শীতের সবজি ‘বিট’ খাওয়ার অসাধারণ কিছু উপকারিতা

বহুগুনে গুণান্বিত সবজি ‘বিট’। যা শীতকালের সবজি হিসেবেও পরিচিত। কারো কারো পছন্দের তালিকায় এই সবজি না থাকলেও, এতে রয়েছে অনেক উপকারি উপাদান। বহু আগে থেকেই মানুষ বিভিন্ন রোগের হাত থেকে মুক্তি পেতে নিয়মিত বিট খেয়ে আসছেন। কারণ এর রয়েছে নানাবিধ গুন। বিটে রয়েছে ভিটামিন, জিঙ্ক, আয়োডিন, ম্যাগনেশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ক্লোরিন, সোডিয়াম-সহ নানা পরিপোষক পদার্থ।

এই বিটের তরকারি, সালাদ, পরোটা বা গোলা রুটি— চাইলেই বানিয়ে ফেলতে পারেন সহজে। বিট পিসে আটার সঙ্গে মিশিয়ে রুটি কিংবা গোলা রুটি বানিয়ে তৈরি করতে পারেন সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর খাবার।

বিট খাওয়ার উপকারিতা –
ফাস্টফুড, স্পাইসিতে অভ্যস্ত জীবনে এমনিতেই লিভারের অবস্থা খারাপ করে। বিটের জুসে থাকা বেটাইন নামে এক উপাদান লিভার ফাংশান ভালো করে। লিভার থেকে টক্সিন বের করে দেয়।

বিটের মধ্যে রয়েছে অ্যান্টি-টিউমার গুণ। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত কোষের হাত থেকে সুস্থ কোষগুলোকে বাঁচায়। নতুন কোষ গঠনে সাহায্য করে।

বিটে খুব কম ক্যালোরি রয়েছে। ফ্যাট প্রায় নেই বললেই চলে। তাই যাঁরা ওজন কমানোর চেষ্টা করছেন, তাদের জন্য বিট খুব ভাল খাবার।

বিটে প্রচুর পরিমাণে নাইট্রেট রয়েছে, যা শরীরে নাইট্রিক অক্সাইড তৈরি করে। এতে রক্তনালী প্রসারিত হয়। ফলে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আসে।

এম ইউ

Back to top button