নাটক

ইভ্যালিকাণ্ডে মুখ খুললেন তাহসান

ঢাকা, ১১ ডিসেম্বর – আলোচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির কর্মকাণ্ডে সহযোগিতার অভিযোগে আবারও আলোচনায় উঠে এসেছেন গায়ক ও অভিনেতা তাহসান খান। সাদ স্যাম রহমান নামে ইভ্যালির এক গ্রাহক তাহসান, মিথিলা ও শবনম ফারিয়াসহ নয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। গত ৪ ডিসেম্বর রাজধানীর ধানমন্ডি থানায় মামলাটি দায়ের করেন তিনি। মামলার তদন্তের স্বার্থে যে কোনো সময় আসামিদের গ্রেপ্তার করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন ডিএমপির রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদুর রহমান।

বেশ কয়েকটি কনসার্টে অংশ নিতে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন তাহসান। তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে যুক্তরাষ্ট্র থেকে তিনি জানান, ‘হয়রানির উদ্দেশ্যেই মামলাটি করা হয়েছে। ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর কখনো প্রতিষ্ঠানের সামগ্রিক দায়ভার নেবেন না। প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী আমার বিজ্ঞাপন করার কথা ছিল। কিন্তু আমি বিজ্ঞাপন করিনি। কারণ এর আগে দুটি লাইভ করে গ্রাহকদের অনেক অভিযোগ পেয়েছি। যার ফলে আর অগ্রসর হইনি। চুক্তি বাতিল করেছি।’

তিনি আরও জানান, ‘আইনি ব্যবস্থা ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার প্রতি আমার পূর্ণ আস্থা আছে। আমি বিশ্বাস করি, সঠিক তদন্তের মাধ্যমে এটা প্রমাণিত হবে যে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে আমরা কোনভাবেই প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমের সাথে জড়িত ছিলাম না।’

ইভ্যালি ইস্যুতে গত কয়েক মাস ধরে তাহসানকে অপমানিত হতে হচ্ছে, যা খুবই অনাকাঙ্ক্ষিত। তাই তিনি ইভ্যালির বিরুদ্ধে মামলা করার কথাও ভাবছেন।

চলতি বছরের মার্চে দুই বছরের জন্য ইভ্যালির শুভেচ্ছাদূত হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হন তাহসান। কিন্তু গ্রাহকের অভিযোগ এতটাই বেশি ছিল যে তিন মাসের মধ্যে নিজে থেকে চুক্তি বাতিল করেন তিনি।

তাহসান গণমাধ্যমকে বলেন, ‘যারা ভুক্তভোগী, তারা তো ভুগছেন; আমিও তো ভুগছি, অনেকভাবে নিগৃহীত হচ্ছি এই ইভ্যালির কারণে। কিন্তু আমি তো আমার দায়বদ্ধতার কারণে ঠিক কাজই করেছিলাম, বেরিয়ে এসেছিলাম। তাহলে এখন আমাকে কেন নিগৃহীত হতে হচ্ছে?’

তিনি আরও বলেন, ‘গত ২০ বছরে বিনোদন অঙ্গনে সম্মানের সঙ্গে এত কাজ করলাম, এত কোম্পানির সঙ্গে করলাম, আজ এই একটা কোম্পানির জন্য আমাকে যে পরিমাণ ভুগতে হচ্ছে, সেটা তো আসলে অনাকাঙ্ক্ষিত। কী আর করব! অনেক মানুষ সাফার করছেন, আমিও করছি। যাদের কারণে আমি এই জায়গায় পৌঁছলাম এবং আমাকে এভাবে নিগৃহীত হতে হচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে মামলা করব। তবে আগে আমার এই লড়াই থেকে বের হয়ে আসতে হবে।’

এম এস, ১১ ডিসেম্বর

Back to top button