আইন-আদালত

পিপলস লিজিংয়ের ১৪ ঋণ খেলাপির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

ঢাকা, ১০ ডিসেম্বর – আর্থিক প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইনান্সিয়াল সার্ভিস লিমিটেডের (পিএলএফএসএল) ঋণ খেলাপি ১১ প্রতিষ্ঠানসহ ১৪ ব্যক্তির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা দিয়েছেন হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার পিপলস লিজিংয়ের করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের একক বেঞ্চ এ আদেশ দেন। তাদের আগামী ৯ জানুয়ারি আদালতে হাজির করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মেজবাহুর রহমান। বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী তানজিব উল আলম। ১৪ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান হচ্ছে- নাহার ইন্টারন্যাশনাল ট্রেডিং কোম্পানি নামে তিনটি, এস এস ফিলিং স্টেশন, বাধন ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, শোভা ইন্টারন্যাশনাল (প্রা.) লিমিটেড, সামীর কাদের চৌধুরী, সামিয়া কাদের চৌধুরী, সাজিয়া কাদের চৌধুরী, জেসন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের নামে দুটি, জেসন অ্যাগ্রোভেট লিমিটেড, জেসন ব্রিডাস লিমিটেড ও জেসন ন্যাচারাল প্রডাক্ট লিমিটেডের নামে ঋণ রয়েছে।

আদালতের আদেশ এবং ব্যক্তি–প্রতিষ্ঠানের নাম উল্লেখ করে আইনজীবী মেজবাহুর রহমান বলেন, ১২ জুলাই হাইকোর্ট পিএলএফএসএল পুনরুজ্জীবিত করতে ১০ সদস্যের পরিচালনা পর্ষদ গঠন করে দেন। আদেশ অনুসারে ৩০ দিনের মধ্যে ডাউনপেমেন্টের মাধ্যমে ঋণ পুনঃতফসিলের জন্য পিএলএফএসএলের প্রধান কার্যালয়ে যোগাযোগ করতে ঋণগ্রহীতাদের নির্দেশ দেওয়া হয়। অর্থ পরিশোধে ব্যর্থ হলে আদালতে সশরীর হাজির হয়ে তাদের অবস্থান ব্যাখ্যা করতে হবে বলে আদেশে বলা হয়। এর মধ্যে ২১ জনের সঙ্গে পিএলএফএসএল যোগাযোগ করার চেষ্টা করে।

ছয়জন আদেশ অনুসারে ডাউনপেমেন্ট দিয়ে ঋণ পুনঃতফসিল করেন। একজন অসুস্থ। অপর ১৪ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। তাই এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা চেয়ে আবেদনটি করা হলে হাইকোর্ট ৩ ব্যক্তি ও ১১ প্রতিষ্ঠানের প্রতি এই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা দিয়েছেন।

সূত্র : আমাদের সময়
এন এইচ, ১০ ডিসেম্বর

Back to top button