ব্যক্তিত্ব

সম্পর্কের যেসব কথা বন্ধুকে কখনো বলবেন না

বন্ধু তো সেই হয়, যাকে মনের সব কথা বলা যায়। তাই বলে নিজের ঘরের সব কথাও বন্ধুকে বলে দেবেন? এই বোকামি ভুলেও করা যাবে না। কিছু কথা বন্ধুকে কখনোই বলবেন না। জানতে চান সেগুলো কী? তাহলে রিডার্স ডাইজেস্টের এই তালিকাটি একবার দেখে নিন।

১. সঙ্গীর সঙ্গে শেষ যে বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয়েছে, সেটি ভুলেও বন্ধুকে বলবেন না। সে কী আপনাদের ঝগড়ার কোনো সমাধান দিতে পারবে বলুন? তাহলে অযথা তাকে নিজেদের সমস্যার কথা জানিয়ে লাভ কী?

২. অনেকে শারীরিক সম্পর্কের কথা বন্ধুকে না জানানো পর্যন্ত শান্তি পায় না। এটা আপনার এবং আপনার সঙ্গীর জন্য খুবই অস্বস্তিকর বিষয়। আর এমন ব্যক্তিগত বিষয় শুধু বন্ধু না কাউকেই বলা উচিত নয়।

৩. যেসব গোপন কথা সঙ্গী আপনাকে বলে সেগুলো বন্ধুকে বলা ঠিক না। আপনার সঙ্গী তো আপনাকে বিশ্বাস করে সব বলেছে। আপনি হয়তো এগুলো কারো কাছে প্রকাশ করবেন না। কিন্তু কে জানে, আপনার বন্ধু ঠিকই অন্যকে বলে বেড়াতে পারে এসব কথা। তাই সঙ্গীর গোপন কথা বন্ধুকে ভুলেও জানাবেন না।

৪. সঙ্গী আপনার জন্য যে উপহারটি এনেছে, সেটি বন্ধুকে বলে প্রশংসা কুড়ানোর কোনো মানে নেই। এতে অনেক সময় বন্ধুর হিংসার শিকারও হতে পারেন আপনি। সবাই যে আপনার ভালো চাইবে, এই ভুল ধারণা থেকে বেরিয়ে আসুন।

৫. বন্ধুর কাছে নিজের শ্বশুরবাড়ির বদনাম করবেন না। এমনকি কোনো বিষয় নিয়ে পরিবারের মানুষদের সঙ্গে ঝগড়া হলেও বন্ধুকে জানাবেন না। এতে আপনার পারিবারিক কলহের কথা সবাই জেনে যাবে। কোন পরিবারে ঝামেলা থাকে না বলুন? তাই বলে সবাইকে বলে বেড়াতে হবে এসব, তার তো কোনো মানে হয় না!

৬. আপনাদের অর্থনৈতিক অবস্থা কেমন, সেটা বন্ধুর না জানলেও চলবে। অযথা নিজেদের অর্থনৈতিক অস্বচ্ছলতার কথা বন্ধুকে জানিয়ে সঙ্গীকে ছোট করবেন না। আপনার সামনে বন্ধু সান্ত্বনা দিলেও পিছনে গিয়ে ঠিকই হাসাহাসি করবে।

৭. সঙ্গীর খারাপ অভ্যাসগুলো বন্ধুকে না জানানোই বুদ্ধিমানের কাজ। এতে আপনার সঙ্গীকে আপনার বন্ধু খুব একটা পছন্দ করবে না। এমনকি শ্রদ্ধাবোধও কমে যাবে, যা আপনার জন্যও লজ্জাজনক।

এম ইউ

Back to top button