ফ্যাশন

অফিস অথবা কলেজ যেকোন জায়গাতেই চলে জাম্পসুট

সকালে ঘুম থেকে উঠেই কলেজ বা অফিসে দৌড়। তাড়াহুড়োর সময় পোশাক বাছা নিয়ে দোটানার শেষ থাকে না। বিশেষ করে নারীদের একটু বেশিই সময় লাগে পোশাক বেছে নিতে। এটা নয় সেটা করে, ঘণ্টার পর ঘণ্টা সময় কেটে যায়। কিন্তু হাতে যদি সময় কম থাকে, চটজলদি তৈরি হওয়ার জন্য জাম্পস্যূট একেবারে পারফেক্ট। জাম্পসুট মানেই অল-ইন-ওয়ান। অফিস হোক বা কলেজ জাম্পসুটে আপনাকে দেখাবে নজরকাড়া।

আজিও অলিভ জাম্পসুট : অলিভ কালারের জাম্পসুটের সঙ্গে হালকা হিল দেওয়া জুতো। অফিসে বা কলেজ, দু’জায়গাতেই ভালো মানাবে।

সোল জাম্পসুট : সুতির পোশাক যদি আপনার প্রিয় হয়, তবে এই জাম্পসুট আপনার পছন্দ হবেই। দেখায় ভালো, আবার পরেও আরাম।

পোলকা ডট জাম্পসুট : পোলকা ডট বরাবরই খুব ফ্যাশনেবল। অফিসে বা কলেজে ফ্যাশনিস্তা হিসেবে নাম কিনতে পারবেন এই জাম্পসুট পরে।

প্রিন্টেড জাম্পসুট : ইন্দো-ওয়েস্টার্ন সাজ যদি ভালো লাগে, তবে এই জাম্পসুটও আপনার ভালো লাগবে। আপনাকে এই জাম্পসুটে মানাবেও বেশ সুন্দর।

পিন স্ট্রাইপ জাম্পসুট : অফিসের জরুরি মিটিং। বুঝতে পাচ্ছেন না কী পরবেন। এমনটা হলে বেছে নিতে পারেন সাদা, কালোর স্টার্ইপ দেওয়া জ্যামসুট।  চাইলে উপর থেকে ব্লেজার জড়িয়ে নিতে পারেন।

বাটন ফ্রন্ট জাম্পসুট : প্রত্যেকদিন অফিস বা কলেজ যাওয়ার জন্য বাটন ফ্রন্ট জাম্পসুট পরতে পারেন। ফ্যাশনেবল লুকস্ পাবেন, আবার এই জ্যামসুট পরে আরামও পাবেন।

হোয়াইট জাম্পসুট : সাদা রং কম বেশি অনেকের ভালো লাগে। অফিসের বিশেষ কোনও অনুষ্ঠানে পরতে পারেন সাদা রঙের জাম্পসুট। সকলের নজর আপনার দিকেই থাকবে।

বেল্ট লং জাম্পসুট : স্মার্ট ও ক্যাজুয়াল লুকস্ পেতে বেছে নিতে পারেন এই জাম্পসুট।

এম ইউ

Back to top button