পুষ্টি

সন্তান ধারণে সহায়ক খাবার

স্বপ্না ইসলাম। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ম্যানেজমেন্ট বিষয়ে পড়াশোনা শেষ করেছেন। তার ইচ্ছা নিজেকে গুছিয়ে নিয়ে তারপর বিয়ে করবেন। পড়াশোনা শেষ করে চাকরি পেতে পেতে তত দিনে বিয়েতে অনেক দেরি হয়ে যায় তার। অবশেষে পারিবারিকভাবে বিয়ে হলো। বিয়ের কিছুদিন পর থেকে সন্তান নেওয়ার চেষ্টা করেন তিনি। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে। ডাক্তারি মতে, স্বপ্না শারীরিক উর্বরতাজনিত (ফার্টিলিটি) সমস্যায় ভুগছেন।

শুধু স্বপ্না নন, তার মতো হাজারো নারী এ সমস্যায় ভুগছেন। বিয়েতে দেরিসহ নানান কারণে এ সমস্যা হতে পারে। আর তাদের এই সমস্যা থেকে সমাধান দিতে গবেষকরা বেশ কয়েকটি খাবার নির্ধারণ করেছেন। যেগুলো নারীর সন্তান ধারণের সক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করবে।

পাঠকদের জন্য এখানে কয়েকটি খাবারের কথা উল্লেখ করা হলো:

কলা
কলায় ভিটামিন বি৬ রয়েছে। যা মাসিককে নিয়মিত করতে সহায়তা করে। এ ছাড়া, দুর্বল ডিম্বাণু সবল হয় এবং উর্বরতা বৃদ্ধি পায়। কলা হরমোনের স্বাভাবিক কার্যপ্রক্রিয়াকেও নিয়ন্ত্রণ করে। তাই সন্তান জন্মদানে ইচ্ছুক নারীদের কলা খাওয়ার কথা বলেছেন এই গবেষকরা।

ডিম
ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা উর্বরতা বাড়াতে নারীদের ডিম খেতে বলেছেন। সম্প্রতি তারা নারীদের ওপর একটি গবেষণা চালিয়ে দেখতে পান যে তাদের মধ্যে মাত্র ৭ শতাংশ নারীর শরীরে সঠিক মাত্রায় ভিটামিন-ডি আছে। বাকি সবাই কমবেশি ভিটামিন ডি-এর স্বল্পতায় ভুগছেন। তাই উর্বরতা বৃদ্ধির জন্য নারীদের ডিম খাওয়ার পরামর্শ দেন। কারণ ডিমে প্রচুর ভিটামিন-ডি পাওয়া যায়।

বাদাম
বাদামে রয়েছে ভিটামিন-ই। গবেষকদের ধারণা, নিয়মিত বাদাম খেলে শরীরে প্রয়োজনীয় ভিটামিন-ই এর চাহিদা পূরণ হবে এবং নারীর উর্বরতা বৃদ্ধি পাবে। বাদামে অ্যান্টি অক্সিডেন্টও আছে, যা ডিম্বাণুকে রক্ষা করতে সহায়তা করে।

আরও পড়ুন: অধিকাংশ শিশুর মৃত্যু ‘প্রতিরোধযোগ্য’

মটরশুঁটি
মটরশুঁটিতে রয়েছে জিংক । নারীদেহে হরমোনের ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য যা অত্যন্ত জরুরি। জিংকের অভাবে এস্ট্রোজেন ও প্রোজেস্টেরনের ভারসাম্য নষ্ট হয়। ফলে গর্ভধারণে সমস্যা হয়। তাই নারীর উর্বরতা বৃদ্ধির জন্য মটরশুঁটি একটি আদর্শ খাবার বলে তারা মনে করছেন।

লেবু
টকজাতীয় রসাল ফল, যেমন লেবু, কমলা ইত্যাদি শরীরে হরমোনের ভারসাম্য বজায় রাখে। ফলে নারীদের গর্ভধারণে সুবিধা হয়।

আডি/ ২৯ অক্টোবর

Back to top button