টলিউড

তারায় তারায় চুলাচুলি

কলকাতা, ২৩ নভেম্বর – পশ্চিমবঙ্গে অনেক তারকা অভিনয়শিল্পী, নির্মাতা, সংগীতশিল্পী রাজনীতির সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত। কেউ বিজেপির রাজনীতি করেন, কেউবা তৃণমূলের। রোববার (২১ নভেম্বর) ত্রিপুরা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় যুব তৃণমূলের সভাপতি ও টলিউড অভিনেত্রী সায়নী ঘোষকে। তারপর থেকেই উত্তাল ত্রিপুরা-কলকাতা। যদিও সোমবার সন্ধ্যায় জামিন পেয়েছেন সায়নী।

সায়নী ঘোষকে কেন্দ্র করে চুলাচুলি শুরু হয়েছে তারকা রাজনীতিকদের মধ্যে। পক্ষে-বিপক্ষে চলছে তর্কাতর্কি! এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন টলিউড পরিচালক ও তৃণমূলের বিধায়ক রাজ চক্রবর্তী। সোশ্যাল মিডিয়ায় ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে একহাত নেন তিনি। রাজ টুইটে লিখেন, ‘‘খুনের চেষ্টার অভিযোগে যুব তৃণমূলের সভাপতি সায়নী ঘোষের এই গ্রেপ্তারি ইঙ্গিত দিচ্ছে কা-পুরুষ মুখ্যমন্ত্রী ভয় পেয়েছেন আর ত্রিপুরাতেও ‘খেলা হবে’। নিজের বিদায়ের প্রহর গুণতে শুরু করে দিন বিপ্লব দেব।’’

তৃণমূলের সাংসদ ও টলিউড অভিনেত্রী নুসরাত জাহান। তিনিও বিষয়টি নিয়ে মুখে কুলুপ আঁটেননি। বরং টুইটে লিখেন—‘লজ্জা! লজ্জা!’ আর তাতে যোগ দেন তৃণমূল ও বিজেপির সমর্থকরা। শুরু হয় নতুন অধ্যায়। যা এখনো চলমান।

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে টলিউডের একঝাঁক তারকা অভিনয়শিল্পী অংশ নিয়েছিলেন। আসানসোল দক্ষিণ আসনে তৃণমূলের হয়ে ফ্যাশন ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা পালের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন সায়নী। কিন্তু তার কাছে হেরে যান এই অভিনেত্রী। মজার বিষয় হলো—সায়নী গ্রেপ্তার হওয়ার পর মুখ খুলেছেন সেই অগ্নিমিত্রা।

এক ভিডিও বার্তায় অগ্নিমিত্রা বলেন, ‘উস্কানিমূলক মন্তব্য করে একটা ল’ অ্যান্ড অর্ডার যে সিচুয়েশন তৈরি হয়, তাকে থামানোর জন্য পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করেছে। পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল অসভ্য সংস্কৃতি আমদানি করেছে। তা তারা সারা ভারতবর্ষে চালিয়ে যাবে। সেটা হতে পারে না। দলের নেত্রী সেখানকার মাননীয় মুখ্যমন্ত্রীর সভাতে সেরকম কথা বলবেন আর পুলিশ ব্যবস্থা নেবে না তা হতে পারে না।’

তৃণমূল নাটক করছে, তা উল্লেখ করে অগ্নিমিত্রা বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে বাংলাদেশে হিন্দু অত্যাচারের বিরুদ্ধে বিজেপির প্রতীকী মৌন প্রতিবাদ মিছিল করে যদি গ্রেপ্তার হতে হয়, তবে মুখ্যমন্ত্রীর সভায় উস্কানিমূলক মন্তব্যের জন্য পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারবে না, তা তো হয় না। এটা নিয়ে নাটক করে কোনো লাভ হবে না।’

পৌরসভা নির্বাচনের প্রচারে ত্রিপুরায় গিয়েছিলেন সায়নী ঘোষ। প্রচার শেষে হোটেলে ফেরার সময়ে তার গাড়ির ধাক্কায় এক ব্যক্তি আহত হন। হত্যাচেষ্টার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। কিন্তু এই অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করেছেন সায়নী। আজ জামিন পেয়ে এ অভিনেত্রী বলেন—‘আমার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ প্রমাণিত। আমাদের লড়াই চলবে। এভাবে দমানো যাবে না।’

এন এইচ, ২৩ নভেম্বর

Back to top button