ত্রিপুরা

ত্রিপুরায় পুরভোটের প্রচারে গিয়ে ‘আক্রান্ত’ বাবুল, দুষছেন বিজেপিকে

আগরতলা, ২০ নভেম্বর – ভারতের ত্রিপুরায় পৌরসভা ভোটে প্রচারে গিয়ে বিজেপির হাতে আক্রান্ত হওয়ার অভিযোগ তুলেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের বাবুল সুপ্রিয়। ওই রাজ্যের রাজধানী আগরতলার রামনগর এলাকায় দলের হয়ে প্রচার করতে গেলে বিজেপির নেতাকর্মীরা গাড়ি লক্ষ্য করে পাথর ছুঁড়েছেন বলে দাবি করেছেন এই জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী ও রাজনীতিবিদ। শনিবার একাধিক টুইটে এমন দাবি করেন বিজেপির সাবেক এই প্রতিমন্ত্রী।

কয়েক মাস আগে তৃণমূলে যোগ দেন বিজেপির সাবেক এমপি ও প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। পরে তৃণমূলের হয়ে বিভিন্ন ইস্যুতে সরব হন তিনি। শুক্রবার আগরতলা পৌরসভার নির্বাচনে প্রচারে গিয়েছেন বাবুল। ফিরে শনিবার সন্ধ্যায় টুইটে বাবুল লিখেছেন, ‘আগরতলায় হিংসাত্মক কর্মকাণ্ডের মুখে পড়েছিলাম। গাড়িতে পাথর ছোঁড়া হয়েছিল। কিন্তু গাড়ি থেকে নেমে এগিয়ে যেতেই কাপুরুষগুলো পালিয়ে যায়। লজ্জা ও রসিকতার বিষয় হলো, বিজেপি এখানে (পশ্চিমবঙ্গ) যে রাজনৈতিক হিংসার বিরুদ্ধে প্রচার চালায় ত্রিপুরাতে সেই পথই অনুসরণ করে।’

বাবুল সুপ্রিয় দ্বিতীয় টুইটে তার সাবেক দল বিজেপির নেতাদের মনে করিয়ে দিয়েছেন নিজের অতীতের লড়াইয়ের কথা। টুইট বার্তায় তিনি লিখেছেন, ‘আমার গাড়ি কখনোই নিরাপদ নয়। বাধার মুখে পড়লেই আমি নেমে পড়ি এবং মোকাবিলা করি। মনে করুন কে জিতেছে। ২০১৪ সালে একমাত্র আসন জয়। ২০১৯ সালে আবার জয়। কার শিরদাঁড়া আছে আপনাদের দলকে (যারা পিঠে ছুরি মারেন) ছাড়ার? মাঝপথে এমপি পদ ছাড়ার? বলুন কীভাবে আসানসোলে জিতবেন?’

ত্রিপুরার পৌরসভার ভোটে তৃণমূলের প্রচারে গিয়ে এরই মধ্যে স্থানীয় বিজেপি নেতাকর্মীদের কটাক্ষের শিকার হয়েছেন বাবুল। তার কয়েকটি সভার কাছেই তারই গাওয়া একটি ‘তৃণমূলবিরোধী’ গান বাজানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল বিজেপিতে থাকা অবস্থায় ‘এই তৃণমূল আর না’ শিরোনামের ওই গানটি রেকর্ড করেছিলেন।

শুক্রবার ত্রিপুরার একটি সভায় বাবুল যখন যুব তৃণমূল নেত্রী সায়নী ঘোষের উপস্থিতিতে বক্তব্য দিচ্ছিলেন, তখনই কাছের একটি মাইক থেকে ওই গানটি শোনা যাচ্ছিল। ওই গানের বিষয়ে এক ধরনের ব্যাখ্যা দিয়ে বাবুল বলেছেন, ‘তাহলেই বুঝুন যে ছেলে এই করেছিলেন, সেও বিজেপিতে টিকতে পারল না।’

ত্রিপুরার বিজেপি নেতা নব্যেন্দু ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, যে কেউ বিক্ষোভ দেখাতেই পারেন। তবে তৃণমূলের অনেকে এমন শব্দ ব্যবহার করেন, যা শব্দসন্ত্রাসের মধ্যে পড়ে।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/২০ নভেম্বর ২০২১

Back to top button