বিচিত্রতা

আবদুর রহিমের বয়স ১৪৯ বছর!

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আবদুর রহিম। তার প্রকৃত বয়স প্রায় ৪২ বছর। কিন্তু জাতীয় পরিচয়পত্রে তার জন্ম তারিখ ২৮ মার্চ ১৮৭২ সাল। এতে তার বয়স দাঁড়ায় ১৪৯ বছর! এ নিয়ে তার পরিবারের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

জানা গেছে, আবদুর রহিমের বাড়ি রায়পুর পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের পূর্ব কেরোয়া গ্রামে। তার বাবার নাম মো. রফিক ও মায়ের নাম রুশিয়া বেগম। তিনি নিজ বাড়ি থেকে পড়ালেখা করেছেন। আবদুর রহিম ৬ জানুয়ারি ১৯৭৯ সালে জন্মগ্রহণ করেন। সে অনুযায়ী তার ইপিআই টিকাদান কার্ড ও জন্ম সনদেও জন্মতারিখ লেখা আছে।

কিন্তু নির্বাচন অফিস থেকে তার জন্মের যে সনদপত্র দেওয়া হয়েছে, তাতে জন্ম তারিখ লেখা হয়েছে ২৮ মার্চ ১৮৭২ সাল। সে হিসাবে জন্মের সনদপত্রে তার বয়স ১০৭ বছর বেশি লেখা হয়েছে। অর্থাৎ জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী ৪২ বছরের আবদুর রহিমের বয়স এখন ১৪৯ বছর!

বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুবেল প্রধানিয়ার কাছে ডেকোরেটর কর্মী আবদুর রহিম এ বিষয়ে অভিযোগ করেছেন।

আবদুর রহিম বলেন, জন্ম সনদপত্রে তারিখ সঠিক রয়েছে। কিন্তু বয়সের গোলমাল ধরা পড়ে কয়েকদিন আগে পাসপোর্ট অফিসে গেলে। পরে রায়পুর উপজেলা নির্বাচন অফিসে বয়স সংশোধনের জন্য গেলে আজ না কাল করে এভাবে তারা এক মাস ধরে হয়রানি করছেন। তিনি জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে এখন কঠিন বিপদে রয়েছেন।

জন্ম সনদপত্রটি দেখে নির্বাচন কর্মকর্তা মো. হারুন মোল্লা বলেন, ‘সনদপত্র টাইপ করার সময় হয়তো ৬ জানুয়ারি ১৯৭৯ সালের স্থানে ভুলবশত ২৮ মার্চ ১৮৭২ লেখা হয়ে থাকতে পারে। তবে যেভাবেই হোক এটি কোনো ছোটখাটো ভুল নয়। অতি দ্রুত বিষয়টি সংশোধনের জন্য চেষ্টা করব।’

এন এইচ, ১৯ নভেম্বর

Back to top button