ফ্যাশন

শীত হচ্ছে স্টাইলের

হালকা শীত হচ্ছে স্টাইলের পাশাপাশি আভিজাত্য ফুটিয়ে তোলার দারুণ একটি সময়। এ সময় বিভিন্ন সান্ধ্যকালীন দাওয়াতে ব্যক্তিত্ববান হয়ে উঠতে বেছে নিতে পারেন স্টাইলিশ কোট ও ব্লেজার।

ফরমাল শার্টের ওপর স্যুট এ সময় নিয়ে আসবে পার্টি লুক। শুধু পার্টি নয়, শীতে অফিস প্রেজেন্টেশন, মিটিংয়ে ছেলেমেয়ে— সবার জন্য আভিজাত ও স্টাইলিশ ফরমাল পোশাক হচ্ছে কোট-ব্লেজার।

শীতে পলিউল বা উইন্টার ফেব্রিক ব্লেজারের চাহিদা বেশি। সুতি কাপড়ের ব্লেজার শীত-গরম সবসময়ই আরামদায়ক। পাশাপাশি ইতালিয়ান ভারসেস, ডিক জ্যাম, ডরমেনি, রেমিকটন, টুইড কাপড়ে কোট, ব্লেজারও আরামদায়ক। রিংকল ফ্রি উলেন কাপড়, সফট লেদার, ডেনিমের কদরও রয়েছে।

তরুণীদের কাছে নেট কাপড়ের ব্লেজারও বেশ জনপ্রিয়। ব্লেজারের প্যাটার্নের ক্ষেত্রে এবারও সাইড ওপেন চলছে। একটু খাটো ঝুল আর রাউন্ড প্যাটার্ন, কোমর পর্যন্ত লম্বা কোট-ব্লেজার তরুণদের পছন্দ। বাটনের রদবদলেও কোট-ব্লেজার হয়ে উঠছে বৈচিত্র্যময়।

পাঁচ বাটন, দুই বাটন, তিন বাটনের পাশাপাশি এখন এক বাটন— এমনকি বাটন ছাড়া ব্লেজারও চলছে। ব্লেজারের সব বাটন এক রঙের যেমন পাওয়া যাবে, তেমন একেকটি বাটন একেক রঙেরও রয়েছে।

বিয়ে, রিসিপশন, বড়দিনের পার্টির মতো জমকালো অনুষ্ঠানে টেকনিক্যাল স্পোর্টস কোট ও প্রিমিয়াম স্যুটে আভিজাত্য ফুটে উঠবে। না ফরমাল না ক্যাজুয়াল; অর্থাৎ সেমি ক্যাজুয়ালও কোট-ব্লেজার পছন্দ করছেন অনেকে। ছে

লেরা শুধু শার্ট-প্যান্টের সঙ্গে কোট ও ব্লেজার পরলেও মেয়েদের বিভিন্ন পোশাকের সঙ্গে কোট-ব্লেজার মানিয়ে যায়। এর মধ্যে শীতে করপোরেট লুকে পোলো শার্ট বা ফরমাল শার্টের সঙ্গে কোট-ব্লেজার মানানসই। ক্যাজুয়াল পোশাকের মধ্যে স্কার্ট, টপস, শার্ট, টি-শার্টের সঙ্গে ভালো লাগবে।

ক্যাজুয়াল পোশাকে উষ্ণতা পেতে গায়ে চাপিয়ে নিতে পারেন সোয়েটার। ভাবছেন সোয়েটার পরে জবুথবু হওয়ার মতো শীত পড়েছে নাকি! না, ভারি সোয়েটার পরার সময় এখনও আসেনি। তবে হালকা শীতেও সোয়েটার পরতে পারেন। কারণ হালকা শীতে পরার জন্য এখন হালকাপাতলা সোয়েটার, ফ্রক সোয়েটার, টিউনিক সোয়েটার, কোটি সোয়েটার, মেয়েদের রাউন্ডনেক, টার্টলনেক সোয়েটারসহ নানারকম স্টাইলিশ সোয়েটার বাজারে এসেছে।

কেবল উষ্ণ পোশাক হিসেবে নয়, এসব সোয়েটার অনায়াসে পরা যাবে ওয়েস্টার্ন আউটফিট হিসেবেও। বিশেষ করে লং টিউনিক সোয়েটারগুলো অনায়াসে পরা যাবে ওয়েস্টার্ন আউটফিট হিসেবে।

টিউনিক সোয়েটারের কোমরে ও হাতায় কুঁচি, এমব্রয়ডারি নকশা, গলায় ভাজ ইত্যাদি বৈচিত্র্য থাকায় এ ধরনের সোয়েটার মানায় যে কোনো অনুষ্ঠানেও। কোমরে বেল্ট দেওয়া সোয়েটার জনপ্রিয় টিনেজারদের কাছে। দৈর্ঘ্য একটু বেশি ও স্ট্রাইপ সোয়েটার এবার বেশি চলছে। গলার কাটিংয়ে জনপ্রিয় হাইনেক ও ফোল্ডিং।

এখন সকাল-সন্ধ্যার ঝিরিঝিরি হাওয়াটা কানে যেন একটু বেশিই শীত ধরিয়ে দেয়! ভাবছেন কানঢাকা টুপি পরতে হবে, তাই না? কিন্তু জিনিসটা তো বড্ড সেকেলে। ফ্যাশনেবল না হলে কী আর এখন চলে! এর সমাধান হুডি। শীতে ফুল স্লিভ টি-শার্ট ও শার্ট, সোয়েটার, জ্যাকেটসহ বিভিন্ন ধরনের পোশাকে এখন হুড ব্যবহার হচ্ছে।

শুধু তাই নয়, মেয়েদের বিভিন্ন কাটের টপসের সঙ্গেও হুডি ব্যবহার হচ্ছে। প্রয়োজনমতো বড়-ছোট করার জন্য কিছু হুডিতে রয়েছে ফিতার ব্যবস্থা। আছে ডিজিটাল হুডিও, যা ইচ্ছে করলেই খুলে রাখা যায়। প্রয়োজনে আবার পড়ে নেওয়া যায়। একরঙার পাশাপাশি বর্তমানে চেক হুডিও চোখে পড়বে।

লাল, হলুদ, সবুজ, গোলাপিসহ বিভিন্ন উজ্জ্বল রঙের পাশাপাশি গতানুগতিক কালো, ছাই, ধূসর ইত্যাদি রঙের হুডি মিলবে বাজারে। স্লিভলেস ও ফুল স্লিভ দুই ধরনের হুডিই এখন ফ্যাশনে ইন।

এন এইচ, ১১ নভেম্বর

Back to top button