আইন-আদালত

আইডিআরএ’র চেয়ারম্যানের বিষয়ে রুল

 

ঢাকা, ০৯ নভেম্বর – বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) চেয়ারম্যান ড. এম মোশাররফ হোসেনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের বিষয়ে কি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। দুদক ও বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটেকে (বিএফআইইউ) তা আগামী ৩০ দিনের মধ্যে জানানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার এই আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান ও ব্যারিস্টার কারিশমা জাহান।

মামলার বিবরণে জানা যায়, আইডিআরএ চেয়ারম্যান এম মোশাররফ হোসেন ২০১৭ সালের ৯ মে ‘লাভস অ্যান্ড লাইভ অর্গানিকস লি.’ নামে একটি কোম্পানি যৌথ মূলধন কোম্পানি ও ফার্মগুলোর নিবন্ধকের কার্যালয়ে (আরজেএসসি) নিবন্ধন করেন। যার পরিচালক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক তিনি নিজে এবং তার স্ত্রী জান্নাতুল মাওয়া। এরপর ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি ‘গুলশান ভ্যালি অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লি.’ নামে আরেকটি কোম্পানি নিবন্ধন করেন। এটারও পরিচালক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে নিজে এবং স্ত্রী জান্নাতুল মাওয়াকে পরিচালক হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেন।

কিন্তু আইডিআরএ আইন ২০১০ অনুযায়ী, কোনো ব্যক্তি কোনো কোম্পানির বা সংস্থার পরিচালক বা অন্যে কোনো পদে নিযুক্ত থাকলে তিনি কর্তৃপক্ষের সদস্য হওয়ার বা থাকার যোগ্য নন। এ অবস্থায় মোশারফের ওই পদে থাকার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে গত ২৬ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টে রিট করেন বিনিয়োগকারী আবু সালেহ মোহাম্মদ আমিন মেহেদী। পরের ৩০ সেপ্টেম্বর আইডিআরএ চেয়ারম্যান ড. এম মোশাররফ হোসেন কোন কর্তৃত্ববলে পদে বহাল আছেন তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। এরই ধারাবাহিকতায় ফের আদেশ দেওয়া হয়।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/০৯ নভেম্বর ২০২১

Back to top button