ক্রিকেট

শোয়েব মালিক দেখালেন তিনি পাকিস্তান দলের কত বড় সম্পদ

আবুধাবি, ০৮ নভেম্বর – শোয়েব মালিক ৩৯ বছর বয়সে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে এসেছেন। কিন্তু ফর্মে যে এতটুকু মরিচা ধরেনি, সেটিই বুঝিয়ে দিলেন আজ। অধিনায়ক বাবর আজম হয়তো এ কারণেই বলেছেন, শোয়েব মালিকের মতো একজন ব্যাটসম্যান যেকোনো দলের জন্য সম্পদ।

মালিক কত বড় সম্পদ, সেটি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেই কিছুটা বুঝেছিল পাকিস্তান। মূলত তার ঠান্ডা মাথার ব্যাটিংয়েই সেদিন পাকিস্তান জয়ের রাস্তা খুঁজে পায়। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে সেদিন আসিফ আলীর দুটি ছক্কা বড় অবদান রেখেছিল ঠিকই, কিন্তু অন্য প্রান্তে মালিক দাঁড়িয়ে ভরসা জুগিয়েছিলেন তাকে। আজ পাকিস্তান বুঝল মালিকের আসল গুরুত্ব। প্রয়োজনীয় সময়ে কী অসাধারণ ব্যাটিং। ছক্কা-চারে দেখিয়ে দিলেন, তিনি দলের কত বড় সম্পদ।

স্কটল্যান্ডের ক্রিস গ্রিভসের শেষ ওভারে পাকিস্তান তুলে নেয় ২৬ রান, যার ২৫-ই মালিকের। মেরেছেন তিনটি ছক্কা, একটি চার। টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের পক্ষে দ্রুততম ফিফটি তিনি কুড়িয়ে নিয়েছেন ১৮ বল খেলে। এবারের বিশ্বকাপেও দ্রুততম ফিফটিতে বসেছেন ভারতের লোকেশ রাহুলের পাশে। ভারতের জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেট বিশ্লেষক হার্শা ভোগলে ঠিক এই সময় এক টুইট বার্তায় বলেন দেখুন, প্রতিটি পরিবারেরই একজন বড় ভাইয়ের দরকার হয়

শোয়েব মালিক যখন ব্যাটিংয়ে নামেন, তখন ১৪.৪ ওভারে পাকিস্তানের সংগ্রহ ১১২। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে পাকিস্তানের বড় স্কোর নিয়ে শঙ্কা জাগে। একটু পর ফিরে গেলেন মোহাম্মদ হাফিজ। এবার আসিফকে সঙ্গী হিসেবে পান মালিক।

সবাই তখন আসিফের ব্যাটে চার-ছক্কার ফুলঝুরির অপেক্ষায়। কিন্তু শোয়েব মালিক একটু অন্যভাবেই দেখলেন পরিস্থিতিটা। নিজেই মারা শুরু করলেন। ২২ বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের অভিজ্ঞতাকে এক জায়গায় জড়ো করে তার অন্তত স্কটিশ বোলারদের ওপর রাজত্ব করতে ভুল হয়নি।

সূত্র : যুগান্তর
এন এইচ, ০৮ নভেম্বর

Back to top button