বাগেরহাট

মোংলায় গ্যাস ফ্যাক্টরিতে বিস্ফোরণ, দগ্ধ ৬

বাগেরহাট, ০৬ অক্টোবর- বাগেরহাটের মোংলায় বসুন্ধরা এলপিজি গ্যাস ফ্যাক্টরিতে সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ছয়জন দগ্ধ হয়েছেন।

শনিবার সন্ধ্যায় মোংলা উপজেলার দিগরাজ এলাকায় অবস্থিত বসুন্ধরা গ্রুপের এলপিজি গ্যাস ফ্যাক্টরিতে এ ঘটনা ঘটে। এরপর দগ্ধ ছয়জনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আহতরা হলেন- মোংলার শেয়ালা বুনিয়া থানা এলাকার মো. শাহ আলমের ছেলে মো. সাইফুল (৩০), রামপাল বাজারের রফিক শেখের ছেলে মো. তরিকুল ইসলাম (২৮), খুলনার বটিয়াঘাটার নুরল ইসলামের ছেলে নুর আলম (২৬), রামপালের সোনাতুনিয়ার ইনসান শেখের ছেলে আজিম (৩১), রামপাল পেডিখালী এলাকার মো. আরোজ আলীর ছেলে ইমরান (২৯) ও রামপালের পেরিখালী এলাকার আইয়ুব আলীর ছেলে হাসান সিকদার (২৮)।

এদের মধ্যে রাত সাড়ে ৯টার দিকে অ্যাম্বুলেন্সে নুর আলম (২৬) ও হাসান সিকদারকে (২৮) ঢাকার উদ্দেশ্যে প্রেরণ করা হয়।

দগ্ধ শ্রমিক ও তাদের স্বজনরা জানান, শনিবার সন্ধ্যায় ফ্যাক্টরিতে কাজ করার সময় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়। এ সময় ছয়জন শ্রমিক দগ্ধ হন। দ্রুত তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মোংলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, বসুন্ধরা এলপিজি গ্যাস ফ্যাক্টরিতে সিলিন্ডারে গ্যাস রিফিলের সময় স্পার্কিং থেকে সৃষ্ট আগুনে ছয়জন দগ্ধ হয়েছেন। তাদেরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক মো. গোলাম সরোয়ার বলেন, বিভিন্ন মাধ্যমে দিগরাজ এলাকার একটি গ্যাস ফ্যাক্টরিতে দুর্ঘটনার খবর শুনেছি। কিন্তু আমাদের কোনো ইউনিটকে তারা জানায়নি।

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক খালিদ আঞ্জুম জানান, দগ্ধ ছয়জনের মধ্যে দুইজনের অবস্থা গুরুতর। ওই দুইজনের শরীরের ৬০ শতাংশের বেশি দগ্ধ হওয়ায় তাদেরকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। বাকি চারজনকে এখানে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

সূত্রঃ বাংলাদেশ জার্নাল

আর আই

Back to top button