ক্রিকেট

ভারতের সেমিফাইনালে যাওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু?

দুবাই, ০৬ নভেম্বর – ক্রিকেট বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বেশি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলা দেশের তালিকা করলে সেই তালিকায় বোধকরি শীর্ষে থাকবে ভারত। তাদের টি-টোয়েন্টি বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান ও বোলারের অভাব নেই। বিশ্বকাপের আগে আরব আমিরাতের বিভিন্ন ভেন্যুতে আইপিএলের দ্বিতীয় পর্বে সেই পরীক্ষিত ব্যাটসম্যান ও বোলাররাও নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছেন পছন্দমতো উপায়ে। বিশ্বকাপের আগে তাদের মতো এতো ভালো প্রস্তুতি আর কোনো দল নিতে পারেনি।

প্রকৃতপক্ষেই টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের জন্য সেরা দল ভারত। লম্বা ব্যাটিং লাইন-আপ। বিশ্বসেরা পেসার, স্পিনার, অলরাউন্ডার তাদের। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের হট ফেভারিট ছিল তারা। ভারতকে নিয়ে ক্রিকেট বিশ্ব থেকে শুরু করে কোটি কোটি ভক্ত-সমর্থকের প্রত্যাশা ছিল আকাশচুম্বী। সেটা থাকার অবশ্য অনেকগুলো যৌক্তিক কারণও রয়েছে।

কিন্তু প্রথম ম্যাচেই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে একেবারে অপ্রত্যাশিতভাবে ১০ উইকেটের ব্যবধানে তারা হেরে গেল। পরের ম্যাচে হারলো নিউ জিল্যান্ডের কাছেও। তাতে ভারতের বিশ্বকাপ যাত্রা একপ্রকার মুখ থুবড়ে পড়ে। শঙ্কা জাগে গ্রুপপর্ব থেকেই বিদায় নেওয়ার। এগুলো অবশ্য পুরনো গল্প।

ভারতের বিশ্বকাপ রথ সঠিক পথে চলতে শুরু করেছে এরপরেই। শঙ্কা পাশে ঠেলে নিবু নিবু আলো জ্বালিয়ে রেখেছে তারা। তৃতীয় ম্যাচেই স্বরূপে ফেরে ভারতের পরীক্ষিত ব্যাটসম্যানরা। বোলাররা তোলেন গতি আর ঘূর্ণির ঝড়। তাতে আফগানিস্তানকে ২১১ রানের টার্গেট দিয়ে ১৪৪ রানে বেশি করতে দেয়নি।

পরের ম্যাচে তো তারা আরও দুর্দান্ত। ভারতের বোলাররা স্কটল্যান্ডকে গুড়িয়ে দেয় মাত্র ৮৫ রানে। এরপর ছক্কা বৃষ্টিতে মাত্র ৩৯ বলে জিতে নেয় ম্যাচ। সবশেষ দুই ম্যাচে বড় জয়ে নেট রান রেটে আফগানিস্তানকে পেছনে ফেলে পয়েন্ট টেবিলের তিনে উঠে আসে। শেষ ম্যাচে নামিবিয়ার বিপক্ষেও যে তারা বড় ব্যবধানে জিতবে সেটা অনুমেয়।

কিন্তু তার আগেই যে তাদের বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়ে যেতে পারে। আবার সেমিফাইনালে যাওয়ার আশা ভালোভাবে জেগে উঠতে পারে। রোববার নিজেদের শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হবে নিউ জিল্যান্ড ও আফগানিস্তান। এই ম্যাচে আফগানিস্তান জয় পেলে ভারতের সেমিফাইনালে যাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে ৯৯% হয়ে যাবে। কারণ, নামিবিয়ার বিপক্ষে বড় ব্যবধানে জয় তুলে নিয়ে আফগানিস্তানকে নেট রান রেটে পেছনে ফেলবে ভারত।

বিশ্বসেরা স্পিনার আর ভয়ডরহীন ব্যাটিং বর্তমান সময়ে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের ক্রিকেটে আফগানিস্তানকে করেছে লড়াকু দল। নিজেদের দিনে তারা যে-কাউকে বিপদে ফেলে দিতে পারে। যেমনটা করতে বসেছিল পাকিস্তানকে। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে তারা জিতেও যেতে পারে। কারণ, এবারের বিশ্বকাপে কিউইরা ভারত ছাড়া আর কোনো দলের বিপক্ষেই খুব একটা প্রভাব বিস্তার করে জিততে পারেনি। তার ওপর দলটা যখন আফগানিস্তান তখন অসম্ভবকে সম্ভব করার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। সেখানেই আশায় বসতি গড়তে পারেন ভারতের ভক্ত-সমর্থকরা।

তবে আফগানিস্তান যদি নিউ জিল্যান্ডকে হারাতে না পারে তাহলে? যেমনটা গতকাল ভারতের তারকা স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজা বলেছেন, ‘তো ফের ব্যাগ প্যাক কারকে ঘর জায়েঙ্গে, অর কেয়া’।

তাহলে ব্যাগপত্র গুছিয়ে দেশের বিমান ধরা ছাড়া আর কোনো পথ খোলা থাকবে না ভারতের সামনে।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ০৬ নভেম্বর

Back to top button