দক্ষিণ এশিয়া

দীপাবলি উপলক্ষে পেট্রল-ডিজেলের দাম কমালো ভারত

নয়াদিল্লি, ০৪ নভেম্বর – ভারতে দীর্ঘদিন ঊর্ধ্বমূখী থাকার পর পেট্রল ও ডিজেলের দাম কমিয়েছে সরকার। কেন্দ্রীয় সরকারের উৎপাদন শুল্ক কমানোর সিদ্ধান্তের ঘোষণায় দেশটিতে লিটারপ্রতি পেট্রলের দাম ৫ রুপি এবং ডিজেলের দাম ১১ রুপি কমেছে। খবর এনডিটিভির।

বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) ভোর থেকে ভারতজুড়ে নতুন মূল্যে ডিজেল ও পেট্রল বিক্রি হচ্ছে। তবে রাজ্যভেদে ডিজেল-পেট্রলের দামও কিছুটা ভিন্ন।

এনডিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, বুধবার (৩ নভেম্বর) দেশটির রাজধানী নয়া দিল্লিতে লিটারপ্রতি পেট্রল বিক্রি হয়েছে ১১০ রুপি দরে এবং ডিজেলের দাম ছিল ৯৮ রুপি। একই দিনে মুম্বাইয়ে পেট্রল বিক্রি হয় ১১৬ রুপি দরে এবং ডিজেল বিক্রি হয়েছে লিটারপ্রতি ১০৬ রুপিতে।

বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) সকালে দাম কমায় দিল্লিতে পেট্রল ১০৫ রুপি এবং ডিজেল ৯৩ রুপি দরে বিক্রি হচ্ছে। তবে মুম্বাইয়ে পেট্রল বিক্রি হচ্ছে ১১১ রুপি এবং ডিজেল লিটারপ্রতি ১০১ রুপি। এছাড়া পশ্চিমবঙ্গে দাম কমে পেট্রল বিক্রি হচ্ছে ১০৪ রুপি দরে এবং ডিজেলের দাম দাঁড়িয়েছে ৮৯ রুপিতে।

এদিকে, কেন্দ্রীয় সরকারের শুল্ক কমানোর সিদ্ধান্তের পরে এনডিএ শাসিত বিহার, আসাম, কর্নাটক, গোয়া, ত্রিপুরা, মণিপুর ও উত্তরপ্রদেশ ডিজেল-পেট্রলে লিটারপ্রতি ১-৭ রুপি পর্যন্ত শুল্ক কমিয়েছে। ফলে এসব রাজ্যেও তেলের দাম কমেছে।

উত্তরাখণ্ড সরকার পেট্রলের দাম দুই টাকা কমানোর কথা বললেও ডিজ়েল নিয়ে কিছু বলেনি। হিমাচল প্রদেশ জানিয়েছে, দাম কমাচ্ছে তারাও।

এনডিটিভির তথ্য অনুযায়ী, ভারতে তেলের মূল দামের সঙ্গে পরিবহন খরচ এবং কেন্দ্রীয় শুল্ক ধরে প্রাথমিক দাম ঠিক হয়। এরপর রাজ্যগুলো তাদের ভ্যাট যুক্ত করে। তার সঙ্গে যোগ হয় ডিলারদের কমিশন। সবমিলিয়ে যে মূল্য দাঁড়ায় তা দিয়ে তেল কিনতে হয় ক্রেতাদের। তবে ভারতের অন্যান্য রাজ্যের চেয়ে ভ্যাট কিছুটা কম থাকায়, তেলের দামও এ রাজ্যে কম।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, সম্প্রতি লোকসভা ও বিধানসভার উপনির্বাচনে ধাক্কা খেয়েছে ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। হিমাচল প্রদেশে বিজেপি সরকারের মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম ঠাকুর বলেছেন, ‘তেলের দাম বাড়ানোর মূল্য দিতে হয়েছে ভোটে।’

এরপরই তেল উৎপাদনে শুল্ক হার কমিয়ে পেট্রল ও ডিজেলের দাম কমানোর পদক্ষেপ নিয়েছে নরেন্দ্র মোদীর সরকার। শুল্ক কমানোর ঘোষণার পর ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়, শুল্ক কমানোর ফলে মোদী সরকারকে চলতি অর্থ বছরে প্রায় ৫৫ হাজার কোটি রুপি রাজস্ব হারাতে হবে।

সূত্র: জাগো নিউজ
এম ইউ/০৪ নভেম্বর ২০২১

Back to top button