কক্সবাজার

মুহিবুল্লাহ হত্যা ও ৬ রোহিঙ্গা খুনের হুকুমদাতার মরদেহ উদ্ধার

কক্সবাজার, ০৩ নভেম্বর – কক্সবাজারের টেকনাফের হোয়াইক্যংয়ের রোহিঙ্গা শিবির থেকে মোহাম্মদ হাসিমের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশের ধারণা রোহিঙ্গাদের গণপিটুনিতে তার মৃত্যু হয়েছে।

নিহত হাসিম টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনছিপ্রাংয়ের ২২নং ক্যাম্পের মৃত নুরুল আমিনের ছেলে। মঙ্গলবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হোয়াইক্যং পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাহাবুবুর রহমান।

তিনি জানান, ক্যাম্প এলাকায় রোহিঙ্গাদের গণপিটুনিতে তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ঘটনাস্থলের উদ্দেশ্যে পুলিশ রওনা দিয়েছে। পরে ঘটনার কারণ ও বিস্তারিত জানা যাবে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র থেকে জানা যায়, আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) নাম ব্যবহার করে দীর্ঘদিন ধরে সে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দাপট দেখিয়ে আসছিল। সম্প্রতি রোহিঙ্গাদের শীর্ষ নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যাকাণ্ড ও মাদ্রাসায় হামলা চালিয়ে ৬ জন হত্যার অন্যতম হুকুমদাতা ছিলেন এই হাসিম। তিনি ক্যাম্পে অঘোষিত নিয়ন্ত্রণযজ্ঞ চালাতেন। এমনকি যারা তার সঙ্গে চলাফেরা করে তাদের ওপরও বিভিন্নভাবে নির্যাতন চালাতেন।

জানা যায়, এসব ঘটনার কারণে সাধারণ রোহিঙ্গারা তার ওপর ক্ষীপ্ত ছিল এবং তাদের গণপিটুনিতে তার মৃত্যু হয়।

টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. হাফিজুর রহমান বলেন, ‘ক্যাম্পেও প্রশাসনের লোক আছে। যদি তাদের প্রয়োজন হয় তবে ফাঁড়ি থেকে লাশ উদ্ধারে আরও পুলিশ যাবে।’

সূত্র: জাগো নিউজ
এম ইউ/০৩ নভেম্বর ২০২১

Back to top button