ক্রিকেট

‘ভারতকে ভাবতে হবে, ইনস্টাগ্রাম নাকি মাঠে ক্রিকেট খেলতে চায়?’

দুবাই, ০১ নভেম্বর – হট ফেভারিট হয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এসে ভারতের একি হাল! বিশ্বাস করতে পারছেন না ক্রিকেটপ্রেমীরা। এমনকি চিরশত্রু পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটাররাও হতাশ, যেমন ‘রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস’ শোয়েব আখতার।

পাকিস্তানের কাছে গত সপ্তাহে ১০ উইকেটে হারের পর রোববার নিউ জিল্যান্ড ৩৩ বল হাতে রেখে জিতেছে ৮ উইকেটে। নির্বিষ ব্যাটিং-বোলিংয়ে সমালোচিত হচ্ছেন বিরাট কোহলিরা। শোয়েবের মতে, টস হারার পর ভারতীয় খেলোয়াড়দের মনোবল যেন ভেঙে পড়েছিল। তাদের বোলিংও ছিল মাঝারি মানের। ভারতের ব্যাটিং অর্ডারে পরিবর্তন দেখেও বিস্মিত পাকিস্তানের সাবেক গতি তারকা।

শোয়েব বলেছেন, ‘তারা অনেক ভুল করেছে। আপনি সহজেই বুঝতে পারবেন, এটা খুব হতাশার। আমার সমবেদনা রইল। এই ধরনের হার হজম করা কঠিন।’ জি নিউজকে তিনি আরো বলেন, ‘ক্রিকেটবোদ্ধা বা যে কাউকে জিজ্ঞাসা সরে দেখুন, আজ একবারও মনে হয়নি ভারত মাঠে খেলছে এবং এটা দেখা হতাশার। আরেকটি ব্যাপার, ভারতের বোলিং আমার কাছে মাঝারি মানের লেগেছে। বুমরা ছাড়া আর কোনো বোলার তার সেরাটা দিয়ে খেলেনি। বরুণ চক্রবর্ত্তী কিছুটা চেষ্টা করেছিল, কিন্তু বাকিরা একেবারে গড়পড়তা বোলিং করেছে।’

টস হারার পরই ভারত কার্যত ভেঙে পড়েছে বলে ধারণা শোয়েবের, ‘আমি বুঝতেই পারছি না কিভাবে তারা এমনটা খেলল। যদি টস হেরে যান, তাহলে কী হয়। এটা কি আপনার জীবন নিয়ে ফেলবে? টস হারার পর তারা হাল ছেড়ে দিয়েছিল।’

আফগানিস্তানের বিপক্ষে বুধবার পরের ম্যাচ খেলবে ভারত। টুর্নামেন্টে ভালো কিছু করতে হলে ভারতীয় ম্যানেজমেন্টকে কৌশল পাল্টাতে হবে বললেন পাকিস্তানের সাবেক পেসার, ‘ব্যাটিং অর্ডার কেন পাল্টাতে হলো, শটও ছিল তাড়াহুড়ো। শামি দেরিতে বল করল, শার্দুলকে মনে হয়েছে গড়পড়তা বোলিং করেছে। এসব দেখে হতাশ লাগছে। পরের ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা নিয়ে আমি দুশ্চিন্তায়। তারা যদি আবু ধাবিতে টস জিতে যায়, তাহলে স্পিন দিয়ে ভারতের ব্যাটিংয়ে ধস নামাবে। তাদের এখনই ভাবতে হবে তারা কি ইনস্টাগ্রামে নাকি মাঠে ক্রিকেট খেলতে চায়। আর যেভাবেই হোক বোলিং ইউনিটকে সেরা অবস্থানে নিয়ে আসতে হবে।’

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ০১ নভেম্বর

Back to top button