রাজবাড়ী

দৌলতদিয়ায় ফেরি পারের অপেক্ষায় বিভিন্ন যানসহ শত শত ট্রাক

রাজবাড়ী, ৩০ অক্টোবর – রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে উপজেলার দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে আটকা পড়ে আছে বিভিন্ন ধরনের যানবাহনসহ শত শত ট্রাক। দীর্ঘ সময় আটকে থাকার কারণে ভোগান্তির শেষ নেই চালক ও সহকারীদের।

শনিবার (৩০ অক্টোবর) সকালে দৌলতদিয়ার ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক ও গোয়ালন্দ মোড়ের রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের প্রায় ৯ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে যানজট দেখা যায়।

২১ জেলার যানবাহনের সঙ্গে শিমুলিয়ার যানবাহনের চাপের কারণে পণ্যবাহী ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানগুলোকে দীর্ঘ সময় ধরে ঘাটে সিরিয়ালে জন্য অপেক্ষা করতে হচ্ছে।

শনিবার দেখা যায়, ফেরিঘাট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দৌলতদিয়ার বাংলাদেশ হ্যাচারীজ পর্যন্ত গাড়ির লম্বা লাইন। এই লম্বা লাইনের দুই কিলোমিটার এলাকায় প্রায় দুই শতাধিক গাড়ি আটকে আছে।

চালকদের অভিযোগ, যাত্রীবাহী বাস ও পচনশীল পণ্যবাহী ট্রাক অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পার করা হলেও অপচনশীল পণ্যবাহী ট্রাকগুলো দীর্ঘ সময় ধরে পদ্মাপারের অপেক্ষায় আছে। ট্রাকগুলো দিনে পর দিন অপেক্ষায় থাকায় ভোগান্তিতে পড়েছে চালক ও সহযোগীরা।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়াঘাট ব্যাবস্থাপক শিহাব উদ্দিন জানান, গাড়ির চাপ সব সময় এক রকম থাকে না। বর্তমানে দক্ষিণঞ্চলের যানবাহনের সঙ্গে শিমুলিয়া বাড়তি যানবাহনের চাপ পড়েছে। এ রুটের ছোট-বড় ১৭ ফেরি চলাচল করছে।

ট্রাক চালকদের অভিযোগ, আশপাশে খাবার হোটেল ও টয়লেট না থাকায় বিপাকে পড়েছেন তারা।

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ মোড়ে দায়িত্বরত ট্রাফিক সার্জেন্ট প্রশান্ত বলেন, বাংলাবাজার-শিমুলিয়ার পণ্যবাহী ট্রাক এই দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুট ব্যবহার করছে। ফলে এ রুটে অতিরিক্ত গাড়ির চাপ পড়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনায় যানজট কমানোর জন্য আমরা অপচনশীল ও পণ্যবাহী ট্রাকগুলোকে গোয়ালন্দ মোড়ে এলাকায় আটকে দিচ্ছি।

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ মোড়ে আটকে থাকা পাথরবোঝাই ট্রাকচালক বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে গোয়ালন্দ মোড় পৌঁছালে পুলিশ আমাদের আটকে দেয়। রাত শেষে ভোরে মোড় থেকে পুলিশ ফেরিঘাটের উদ্দেশে ছেড়ে দিলেও ঘাটে লম্বা লাইনের কারণে প্রায় ৪ ঘণ্টা আটকে আছি। সামনে আরও অন্তত অর্ধশত পণ্যবাহী গাড়ি আছে। সে হিসাবে ফেরিতে উঠতে তাকে আরও ঘণ্টাখানেক অপেক্ষা করতে হবে।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ৩০ অক্টোবর

Back to top button