ফ্যাশন

ফ্যাশনে ফতুয়া

বৈচিত্র্যময় পোশাক হচ্ছে ফতুয়া। এর রঙে রয়েছে বৈচিত্র্য। গাঢ় রঙের যেকোনো পোশাকই এই আবহাওয়ায় অস্বস্তির কারণ হতে পারে। সারা বছর চাহিদা থাকলেও গরমে আরামদায়ক পোশাক হিসেবে কুর্তার জুড়ি নেই। ট্র্যাডিশনাল, ক্যাজুয়াল আবার ফরমাল-যেকোনো ধরনের কুর্তাই কিনতে পাওয়া যায়। গরমে পরার জন্য এবার খানিকটা ঢিলেঢালা ভাব আনা হয়েছে কুর্তায়। কাপড় ও রঙ- দুটোই হালকা হলে ভালো আরাম মিলবে এই সময়ে।

কেমন ফতুয়া?
লম্বা দেহের জন্য বড় বড় প্রিন্টের কুর্তা ভালো লাগবে। তবে উচ্চতা কম হলে সবসময় ছোট প্রিন্টের নকশা করা কুর্তা পরা উচিত। এ ক্ষেত্রে বাঁকা বা আড়াআড়ি ডোরাকাটা প্রিন্ট পরাও উচিত নয়। তার বদলে সোজা ডোরা প্রিন্ট বেছে নিতে পারেন। এতে খানিকটা লম্বা দেখাবে।

গরম মাথায় রেখে হাতাকাটা লম্বা শার্টের মতো কুর্তা এসেছে বাজারে। এছাড়া চলতি ধারার সঙ্গে মিলিয়ে কুঁচি কিংবা ঘের দেওয়া কুর্তাও পরতে পারেন। আবার সোজা কাটের পাঞ্জাবির মতো কুর্তাও রয়েছে সংগ্রহে। কলারসহ এবং কলার ছাড়া দুই ধরনের কুর্তাই আছে। এছাড়া সুতির ওপর স্ক্রিনপ্রিন্ট ও হালকা সুতার কাজও দেখা যাচ্ছে। এছাড়া কুর্তিতে আলাদা করে চোখে পড়ে বোতামের ব্যবহার।  কুর্তায় কখনো হাতা, কখনো গলা, কখনো বা জমিনকে কেন্দ্র করে নকশার কাজটি হয়ে থাকে।

রঙ
সাদা, হালকা বাদামি, হালকা গোলাপি, নীল, পিচ, হালকা সবুজাভ রঙ গরমে বেশ ভালো লাগে। এসবের পাশাপাশি জলপাই, সবুজ, আকাশি, হালকা হলুদ, ঘিয়া, হালকা ম্যাজেন্টা, ফিরোজা, হালকা সবুজ, পেস্ট ধরনের উজ্জ্বল কিন্তু হালকা রঙগুলো কুর্তায় বেছে নিতে দেখা যাচ্ছে। কাপড় হিসেবে সুতি তো আছেই পাশাপাশি লিলেন, অ্যান্ডি, তাঁত, হাফ সিল্ক, মসলিনের ফতুয়াও দেখা যাচ্ছে।

ফতুয়ার সঙ্গে মিলিয়ে
একরঙা কুর্তার সঙ্গে প্রিন্টেড পালাজ্জো এবং স্কার্টে আপনার ফ্যাশনটাকেই বদলে দিতে পারে। কুর্তার কাপড়ের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে বেছে নিতে পারেন সিনথেটিক কাপড়ের ওড়না বা স্কার্ফ। কুর্তা বাড়িতেই বানিয়ে নিতে চাইলে সাড়ে তিন হাত বহরের পছন্দমতো দেড় গজ কাপড় আর দেড় গজ প্রিন্টের কাপড় অথবা অন্য কোনো নকশা দিয়ে বানিয়ে ফেলতে পারেন।

কোথায় পাবেন
মায়াসির, বিবিয়ানা, ক্যাটস আই, আরবান ট্রুথ, আড়ং, নগরদোলা, রঙ, আবর্তন, কে-ক্র্যাফট, জেন্টল পার্ক, এক্সট্যাসি, ওটু, অঞ্জন’স, নিপুণসহ কমবেশি সব ফ্যাশন হাউসের শোরুমে। দেশি-বিদেশি বিভিন্ন রকমের কুর্তা পাওয়া যেতে পারে বসুন্ধরা সিটি, যমুনা ফিউচার পার্ক, গুলশান পিংক সিটি, নিউমার্কেট গাউছিয়া, মৌচাকসহ ঢাকার বিভিন্ন শপিং মল। এছাড়া অনলাইনেও পাওয়া যায়।

দরদাম
ফ্যাশন হাউসগুলোতে ফতুয়া বা কুর্তার দাম পড়বে ৭৯০ থেকে ৩ হাজার টাকা পর্যন্ত। অন্যান্য বাজার বা দোকানে মিলবে এক হাজার টাকার মধ্যেই।

এম ইউ

Back to top button