ক্রিকেট

প্রতিপক্ষ পাকিস্তান, নিউ জিল্যান্ডের দুশ্চিন্তার পাঁচ কারণ

আবুধাবি, ২৬ অক্টোবর – টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ১৯তম ম্যাচে নিউ জিল্যান্ড খেলবে পাকিস্তানের বিপক্ষে। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) রাত ৮টায় শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে তারা। সবুজ জার্সিধারীদের মোকাবিলার আগে কিউইদের ক্যাম্পে দুশ্চিন্তা বাড়াতে পারে এমন পাঁচটি কারণ তুলে ধরেছে শীর্ষস্থানীয় পাকিস্তানি গণমাধ্যম ডন-

গত সেপ্টেম্বরে সফর বাতিল

ভারতের বিপক্ষে যে কোনো ফরম্যাটের বিশ্বকাপে প্রথম জয়ের আনন্দে ভাসছে পাকিস্তান। তাতে কি বাবর আজমরা গত সেপ্টেম্বরে নিউ জিল্যান্ডের কাণ্ড ভুলে গেছেন? মনে হয় না। এখনো সেই অপমান পুষিয়েই রেখেছে তারা।

গত ফেব্রুয়ারির পর প্রথমবার দেশের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ খেলার পথে ছিল পাকিস্তান। কিন্তু ঠিক সিরিজ শুরুর দিন ‘সুনির্দিষ্ট ও বিশ্বাসযোগ্য’ নিরাপত্তা শঙ্কার কথা উল্লেখ করে পাকিস্তান ছাড়ে নিউ জিল্যান্ড। শুধু এটুকু বলেই সফর বাতিল করে কিউইরা। ওই ঘটনার পর থেকে ক্যালেন্ডারের পাতায় পাকিস্তান ২৬ অক্টোবরে দাগ কেটে রাখে। সেই দিনটি আজ। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই নিউ জিল্যান্ড মুখোমুখি হচ্ছে ক্ষোভ জমিয়ে রাখা পাকিস্তানের। ওই উপেক্ষার প্রতিশোধ নিতে নিশ্চিতভাবে শতভাগেরও বেশি দিবে সবুজ জার্সিধারীরা।

ভারতকে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে পাকিস্তান

বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শীর্ষ দলকে হারিয়েছে পাকিস্তান। এবার প্রতিযোগিতার সবচেয়ে ফেভারিটদের মাটিতে নামানোর পালা। বাবর আজম ও তার দল তারকাখচিত ভারতকে হারিয়েছে। ক্রিকেট বিশ্লেষকদের ধারণা, বিরাট কোহলি ও তার শক্তিশালী দলকেই যখন ১০ উইকেটে হারাতে পারে পাকিস্তান, তখন নিউ জিল্যান্ডের কী অবস্থা করতে পারে একবার ভেবে দেখুন তো!

কিউইদের প্রস্তুতির ঘাটতি

খারাপেরও ভালো দিক থাকে মাঝেমধ্যে। এই যেমন নিউ জিল্যান্ড পাকিস্তান সফর বাতিল করে নিজেদেরই সর্বনাশ করেছে। বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি কম হয়েছে তাদের। সবশেষ দলটি প্রতিযোগিতামূলক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশের বিপক্ষে। মানে প্রায় দুই মাস পর ব্ল্যাক ক্যাপরা আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলতে নামছে। যদিও এই দুটি সফরের জন্য বিশ্বকাপ দলের খেলোয়াড়রা ছিলেন না। কিন্তু আইপিএলেও যে তাদের প্রস্তুতি খুব ভালো হয়েছে তা নয়। তাদের কাটা ঘায়ে নুনের ছিটা দিচ্ছে প্রস্তুতি ম্যাচ, অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের কাছে হেরেছে কিউইরা। বলা চলে বিশ্বকাপের জন্য সবচেয়ে বাজে প্রস্তুতি নেওয়া দল নিউ জিল্যান্ড।

হেড টু হেড রেকর্ডে পাকিস্তানের আধিপত্য

টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তান ও নিউ জিল্যান্ড ২৪ বার মুখোমুখি হয়েছে। নিউ জিল্যান্ড জিতেছে ১০টি, হেরেছে ১৪ ম্যাচ। শতাংশের হিসেবে পাকিস্তানের বিপক্ষে তাদের জয় মাত্র ৪১.৬৬। অন্যদিকে ব্ল্যাক ক্যাপদের বিপক্ষে পাকিস্তানের জয় ৫৮.৩৩ শতাংশ।

কেন উইলিয়ামসনের কনুইয়ের ইনজুরি

নিউ জিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ইনজুরি বয়ে বেড়াচ্ছেন। কনুইয়ে চোট পাওয়ার পর থেকে তা সামান্য বলা হলেও কিউইদের জন্য বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়াতে পারে এটি। অতীতে এমন সমস্যা মানিয়ে নিয়ে চলেছিলেন উইলিয়ামসন। কিন্তু তার প্রতিফলন দেখা গেছে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ হারের সময়, মাত্র ৩৭ রান করেন অধিনায়ক। একজন ব্যাটসম্যানের জন্য এমন চোট স্বাভাবিকভাবে অস্বস্তিকর, যা দুশ্চিন্তা বাড়াচ্ছে নিউ জিল্যান্ডের।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ২৬ অক্টোবর

Back to top button