ক্রিকেট

১০, ৮০ কিংবা ১০০ রান করে অবদান রাখতে চাই: মুশফিক

আবুধাবি, ২৫ অক্টোবর – মুশফিকুর রহিম নিজেকে হারিয়ে খুঁজছিলেন। ব্যাট হাতে ২২ গজে ছিলেন নিজের ছায়া হয়ে। অভয় বাণী দিয়েছিলেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। যে কোনো সময় রানে ফিরবেন বাংলাদেশের ব্যাটিং স্তম্ভ। ঠিক হলো তাই। জ্বলে উঠলেন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভের প্রথম ম্যাচে, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।

রোববার (২৪ অক্টোবর) শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মুশফিক চোখ ধাঁধানো এক ইনিংস খেলেন। মাত্র ৩৭ বলে ৫৭ রান করে অপরাজিত ছিলেন। আগে ব্যাটিং করে বাংলাদেশ ৪ উইকেট হারিয়ে ১৭১ রান করে। টার্গেটে খেলতে নেমে ৭ বল বাকি থাকতে ৫ উইকেটে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে শ্রীলঙ্কা।

মুশফিকের এমন দৃষ্টিনন্দন ইনিংস কাজে আসেনি ফিল্ডিং ব্যর্থতায়। নিজের রান না পাওয়া নিয়ে মুশফিক বলেছেন, ‘টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটটা এমন, এখানে ধারাবাহিকভাবে করাটা বেশ কঠিন। কখনও তিন-চার-পাঁচে খেলতে হয়। আবার দলের প্রয়োজনে কখনও সাত-আটেও নামতে হয়। দেখা যায় কখনও পঞ্চম ওভারে, কখনও ১৭তম ওভারে ক্রিজে যাচ্ছি।’

দুই বছর পর মুশফিক হাফ সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন। মাত্র ৩২ বলে মিড অনে সিঙ্গেল নিয়ে দেখা পান হাফ সেঞ্চুরির। ১২ ম্যাচ পর মুশফিক খেলেছেন চল্লিশের বেশি রানের ইনিংস। সর্বশেষ ২০১৯ সালে ৩ নভেম্বর ভারতের বিপক্ষে দিল্লিতে হাফ সেঞ্চুরি করেছিলেন। সেবার বাংলাদেশ জিতেছিল। এবার তার ব্যাট থেকে আসলো ৩৭ বলে ৫৭ রান। ৫টি চার ও ২টি ছয়ের মার ছিল ইনিংসে। তাকে আউটের রাস্তাই খুঁজে পায়নি শ্রীলঙ্কা।

গ্রুপ পর্বের তিন ম্যাচের মধ্যে মুশফিক প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ৩৮ রানের ইনিংস খেলেন। কিন্তু ৩৭ বলে ৩৮ রানের এই ইনিংসটি কোনো কাজে আসেনি। বাংলাদেশ হেরে যায় স্কটিশদের কাছে। পরের দুই ম্যাচে আউট হন ৬ ও ৫ রান করে। আর এবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জ্বলে উঠলেন তিনি। স্কটিশদের বিপক্ষে রান না পাওয়াতে তাকে ওমানের বিপক্ষে নামানো হয় ৮ নাম্বারে। আজ তাকে নামানো হয় চার নম্বরে।

মুশফিক জানান তিনি পোলার্ড-রাসেল নন যে ক্রিজে এসেই মারবেন, তার ক্রিজে সেট হতে সময় লাগে, ‘আমিতো পোলার্ড-রাসেলের মতো নই যে গিয়ে ধুম-ধাম কয়েকটা বলে পেলেই মেরে দিবো। ২-৪-৬ বলেই মেরে দিবো। আমার কিছু সময় লাগে। আমার কিছু শক্তি ও দুর্বলতার জায়গা আছে।’

মুশফিক রান না পাওয়াতে সমালোচনাও হয় চারদিকে। এটা থেকে তিনি অনুপ্রাণিত হয়েছেন জানিয়ে বলেন, ‘নিজের উন্নতি করার চেষ্টা করছি। অনেক সময় অনেক দিক থেকে শুনে মনে হচ্ছে শেষ চার-পাঁচ বছর ধরে আমি রান করি না। এই জিনিসটা আমাকে বেশি অনুপ্রাণিত করেছে, যেটা আমি মনে করি। দলের জন্য অবদান রেখে যেতে চাই সেটা হতে পারে ১০, ৮০ কিংবা ১০০ রান করে।’

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ২৫ অক্টোবর

Back to top button