সচেতনতা

মেয়েদের পিরিয়ডের সময় যেসব কাজ থেকে বিরত থাকবেন

পিরিয়ড বা মাসিক চলাকালীন সময়ে অনেক নারীই নানা সমস্যায় ভোগেন। বিশেষ করে এক শারীরিক অস্বস্তির মধ্যে থাকেন। তাছাড়া অতিরিক্ত রক্তপাত, পেটে ব্যথা, কোমড় ব্যাথা এসব তো কমবেশি লেগেই থাকে । আর এ সময় শরীরের পাশাপাশি মনেও এক অস্বাভাবিক পরিবর্তন আসে। ঘন ঘন মেজাজ হারাতে থাকে। সব মিলিয়ে বেশ অস্বস্তিকর এক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

মাসিকের সময় কয়েকটি ভুল কাজের জন্য নানা ধরনের সমস্যা ও অস্বস্তি বাড়তে থাকে। বিশেষ করে এ সময় ১০টি কাজ একেবারেই করবেন না। যেমন-

১. একটি স্যানিটারি প্যাড ৪-৬ ঘণ্টার বেশি ব্যবহার করবেন না। বেশিক্ষণ ব্যবহৃত স্যানিটারি প্যাড ব্যাকটেরিয়ার আঁতুরঘরে পরিণত হয়। একইসঙ্গে দুর্গন্ধ ছড়াতে পারে ও ত্বকে ফুসকুড়ি ও টিএসএস (টক্সিক শক সিনড্রোম) হতে পারে।

২. এ সময় চিপস কিংবা নোনতা খাবার খাবেন না। এমনিতেই মাসিকের সময় শরীর বেশ ভারী লাগে। তার উপর এসব খেলে শরীরে পানি জমতে পারে।

৩. মাসিক চলাকালীন রাত জাগবেন না। এতে শরীর আরও ক্লান্ত হয়ে পড়তে পারে। একইসঙ্গে ঋতুস্রাবজনিত অস্বস্তিও বাড়তে পারে।

৪. মাসিক চলাকালীন ভুলেও ওয়াক্স করবেন না। এ সময় শরীরের মতো ত্বকও হয়ে পড়ে অনেক সংবেদনশীল। তাই ওয়াক্স করালে বেশি ব্যাথা পেতে পারেন।

৫. এ সময় দই, দুধ বা দুগ্ধজাত খাবার খেলে গ্যাস্ট্রিকসহ কোষ্ঠকাঠিন্যও দেখা দিতে পারে।

৬. এ সময় অতিরিক্ত কফি খাবেন না। উচ্চ মাত্রায় ক্যাফেইন পেটে ব্যাথা বাড়িয়ে তুলতে পারে।

৭. স্যানিটারি প্যাড বা ম্যানস্ট্রুয়াল কাপ ছাড়া ঘুমাবেন না। যদি প্যাড পরে শুতে অস্বস্তি হয় তাহলে আরামদায়ক প্যাড ব্যবহার করুন।

৮. ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য বিপজ্জনক জানলেও অনেকেই মানেন না। তবে মাসিকের সময় ধূমপান করলে প্রচণ্ড ব্যথা হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

৯. মাসিকের কারণে আবার শরীরচর্চা বন্ধ করবেন না। বরং মাসিকের সময় শরীরচর্চা করলে শারীরিক বিভিন্ন সমস্যা দূর হয়।

১০. এ সময় ভুলেও দীর্ঘক্ষণ খালি পেটে থাকবেন না। যেহেতু মাসিকের সময় শরীর থেকে বেশ খানিকটা রক্ত বেরিয়ে যায়, তাই এ সময় পুষ্টিকর খাবার খাওয়া উচিত।

এন এইচ, ২৪ অক্টোবর

Back to top button