ত্রিপুরা

ত্রিপুরায় সুস্মিতার গাড়িতে হামলা, বিপ্লব দেব একটা ‘নপুংসক’! তোপ সাংসদের

আগরতলা, ২৩ অক্টোবর – তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ সুস্মিতা দেবের (Sushmita Dev) গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত ত্রিপুরার রাজ্য রাজনীতি। এ বিষয়ে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে একহাত নিয়েছেন সুস্মিতা। সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বিপ্লব দেবকে নপুংসক বলেন তিনি। “বিপ্লব দেব একটা হিজড়া (নপুংসক)। ব্যালটে লড়াই না করে গাড়িতে হামলা করছে”, এমনই মন্তব্য করেছেন তিনি।

শোনা গিয়েছে, শুক্রবার পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী তিনটি দলে ভাগ হয়ে ত্রিপুরার আটটি জেলায় জনসংযোগে নামে তৃণমূল কংগ্রেস (TMC)। আমতলিতে এই কর্মসূচিতে ছিলেন রাজ্যসভার সাংসদ সুস্মিতা দেব। সেই সময় তাঁর গাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয়। আক্রান্ত হন সাংসদের সঙ্গে থাকা তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরাও। আক্রান্তদের অভিযোগ, এই ঘটনার পিছনে রয়েছে বিজেপি।

এই প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে সুস্মিতা দেব জানান, আমতলী বাজারে জনসংযোগ করতে গিয়েছিলেন তিনি ও তৃণমূল কংগ্রেস সদস্যরা। মাইক্রোফোন সমেত ব্র্যান্ডেড গাড়ি ছিল। গাড়িতে বসা মাত্রই জনা তিনেক দুষ্কৃতী হামলা চালায়। সুস্মিতা দেবের ব্যাগও নাকি কেড়ে নেওয়া হয়। সাংসদের অভিযোগ, ব্যাগ ফেরত নিয়ে তিনি দেখতে পান কর্মীদের দুষ্কৃতীরা মারধর করছে। গোটা ঘটনার তীব্র ধিক্কার জানান সুস্মিতা দেব। আমতলী থানায় গোটা ঘটনার অভিযোগ জানানো হয়। পুলিশের পক্ষ থেকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, ত্রিপুরায় তৃণমূলের (TMC) নয়া রণকৌশলের কথা বৃহস্পতিবারই জানিয়েছিলেন সুস্মিতা দেব। জানানো হয়েছিল, ৮টি জেলা, ৫৮টি ব্লক ও ২০টি শহরে হবে জনসংযোগ কর্মসূচি। স্টিয়ারিং কমিটির সদস্যদের এই জনসংযোগের জন্য তিনটি গোষ্ঠীতে ভাগ করা হয়েছে। আগামী ২ নভেম্বর শেষপর্যন্ত এই কর্মসূচি চলবে। সেই মতোই শুক্রবার থেকে ত্রিপুরার পথে নামলেন তৃণমূলের নেতা কর্মীরা।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন
এম ইউ/২৩ অক্টোবর ২০২১

 

Back to top button