ক্রিকেট

বিদ্বেষমূলক মন্তব্যে গ্রেফতার হয়েছিলেন যুবরাজ সিং

নয়াদিল্লী, ১৮ অক্টোবর- করোনাকালে লাইভ আড্ডাটা বেশ জমে উঠেছিল। বিশেষ করে গত বছর ক্রিকেটারদের মধ্যে অন্যরকম প্রাণের সঞ্চার ঘটে। কিন্তু এমন আড্ডায় অংশ নিয়ে যুবরাজ সিং যে এভাবে ফেঁসে যাবেন, তা হয়তো চিন্তাও করেননি! ইন্সটাগ্রামে রোহিত শার্মার সঙ্গে এক আড্ডাতে  যুজবেন্দ্র চাহালকে নিয়ে রসিকতা করেছিলেন ভারতের সাবেক এই ক্রিকেটার। আর সে ঘটনাতেই গত ১৫ অক্টোবর রাতে গ্রেপ্তার হতে হয়েছে তাকে!

বরণবাদী আচরণের কারণে হরিয়ানা রাজ্যের হিসার জেলার হানসি অঞ্চলের পুলিশ দণ্ডবিধি ১৫৩ (এ) এবং ৫০৫ ধারায় যুবরাজকে গ্রেপ্তার করে। জিজ্ঞাসাবাদও করা হয় তিন ঘণ্টা। এরপর অবশ্য তাকে জামিনে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

অবশ্য যে কারণে এর সূত্রপাত সেটি কিন্তু পুরনো। গত বছরের জুনে লাইভ আড্ডায় চাহালের টিকটক ও ইনস্টাগ্রাম মাতামাতি নিয়ে যুবরাজ মজা করেছিলেন। একপর্যায়ে চাহালকে বোঝাতে গিয়ে এমন শব্দ ব্যবহার করেন, যাকে বলা হচ্ছে ‘জাতি বিদ্বেষমূলক’ ! এ ব্যাপারে যুবরাজ গত বছরই ক্ষমা চেয়েছিলেন।

টুইট করে ক্ষমা চেয়ে ভারতের বিশ্বকাপজয়ী অলরাউন্ডার বলেছিলেন, ‘আমি কখনও কোন জাতি, বর্ণ, ধর্ম অথবা লিঙ্গের বৈষম্যে বিশ্বাস করিনি। সারা জীবন মানুষের জন্য কাজ করেছি। আমি মানুষকে মর্যাদা দেওয়ায় বিশ্বাস করি। মানুষ একে অপরকে নিঃস্বার্থ ভাবে সম্মান করুক, এটাই চেয়ে এসেছি। বন্ধুদের কথা বলার সময় আমার একটি কথার অন্য অর্থ করা হয়েছে, যেটা অনভিপ্রেত। ভারতের একজন দায়িত্বশীল নাগরিক হিসেবে আমি যদি কারও ভাবাবেগে আঘাত করে থাকি, তার জন্য ক্ষমা চাইছি। আমি ভারতকে ভালবাসি আর ভারতবাসী সব সময় আমার অন্তরে থাকে।’

সূত্রঃ বাংলা ট্রিবিউন

আর আই

Back to top button

This will close in 20 seconds