কুড়িগ্রাম

উলিপুর পৌর মেয়রের বাসায় কেয়ারটেকারের ঝুলন্ত লাশ

কুড়িগ্রাম, ২৭ অক্টোবর- কুড়িগ্রামের উলিপুর পৌর মেয়রের বাসা থেকে আলামিন মিয়া (১৯) নামে এক কেয়ারটেকারের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার পৌর শহরের জোদ্দারপাড়াস্থ মেয়রের বাসভবন থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

আলামিন পার্শ্ববর্তী চিলমারী উপজেলার রাণীগঞ্জ ইউনিয়নের চড়ুয়াপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে। তিনি গত ৭ মাস ধরে পৌর মেয়র তারিক আবু আলার বাসায় কেয়ারটেকার হিসেবে কাজ করছিলেন।

উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট হাতে পেলে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।

মেয়রের পরিবারের লোকজন জানায়, আলামিন সোমবার সন্ধ্যায় শহরের কাচারী পুকুরে প্রতিমা বিসর্জন দেখার পর বাসায় ফেরেন। এরপর খাওয়া দাওয়া শেষে তিনি নিজ শয়নকক্ষে ঘুমিয়ে পড়েন।

আরও পড়ুন: রংপুরে ওএমএস এর চাল কালোবাজারে, আটক ৩

মঙ্গলবার সকালে আলামিন তার রুমের দরজা না খুললে ডাকাডাকি করা হয়। অনেক করার পরও তার কোন সাড়া পায় না বাড়ির লোকজন। এক পর্যায়ে পার্শবর্তী বাড়ির মাসুষজন গিয়ে ঘড়ের বেড়ার ছিদ্র দিয়ে আলামিনের ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পায়। পরে উলিপুর থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

পৌর মেয়র তারিক আবু আলা বলেন, আমি এবং আমার পরিবার চিকিৎসার কাজে ঢাকায় অবস্থান করছি। বিষয়টি আমি সকালে শুনেছি। তবে সে কেন এমন করল সেটা বুঝতে পারলাম না।

তিনি জানান, কেয়ারটেকার আলামিন মাঝে মাঝে বলতো- তার সাথে জ্বিনের আছর আছে। ‘জ্বিন আমার সাথে মারামারি করে’ এরকম পাগলাটে কথাবার্তাও বলতো সে। কিন্তু এরকম দুর্ঘটনা ঘটাবে বুঝিনি। তার জন্য আমি খুবই ব্যথিত।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এম এন / ২৭ অক্টোবর

Back to top button