জানা-অজানা

১১ অক্টোবর ঘটে যাওয়া নানান ঘটনা

প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। আর সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়-যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানব সভ্যতার আশীর্বাদ-অভিশাপ।

ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সব সময় গুরুত্ব বহন করে। এ গুরুত্বের কথা মাথায় রেখেই পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘আজকের এই দিনের ইতিহাস’।

আজ ১১ অক্টোবর ২০২১, সোমবার। একনজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনাবলী

০৬৩২ – ইয়ামমার যুদ্ধে ভণ্ড নবী মুসায়লাম কাজ্জাব নিহত হয়।

১৫০৩ – দ্বিতীয়বার ভারত ভ্রমণ শেষে পর্তুগিজ নাবিক ভাস্কো-দা-গামা মোজাম্বিকের তাগুসে উপস্থিত হন।

১৬৬৯ – পিটার দি গ্রেট রাশিয়ার জার হন।

১৭৩৭ – কলকাতায় যুগপৎ ভূমিকম্প ও ঘূর্ণিঝড়ে তিন লাখ লোকের মৃত্যু ঘটে।

১৮৭১ – শিকাগোর ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড আয়ত্তে আনা হয়।

১৮৯৯ – দক্ষিণ আফ্রিকায় হল্যান্ড ও বৃটিশদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ সংঘটিত হয়।

১৯২৩ – জার্মান মুদ্রার বিপজ্জনক মুদ্রাস্ফীতি ঘটে। ১ পাউন্ডের মূল্যমান দাঁড়ায় ১ হাজার কোটি মার্ক।

১৯৩৭ – চীনের সাংহাইএ চীন আর জাপানের সেনাবাহিনীর মধ্যে তীব্র লড়াই হয়। এই লড়াইয়ে দু’পক্ষের বিপুল সংখ্যক সৈন্য হতাহত হয়।

১৯৫৭ – প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে শহীদ সোহরাওয়ার্দী পদত্যাগ করেন।

১৯৬২ – চীন-ভারত যুদ্ধ শুরু হয়।

১৯৬৪ – কায়রোতে ৪৭ জোট নিরপেক্ষ দেশের সম্মেলন সমাপ্ত হয়।

১৯৭২ – চীন আর জার্মানীর মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিষ্ঠিত হয়।

১৯৭৪ – গিনি-বিসাউ ও গ্রানাডা জাতিসংঘের সদস্যপদ লাভ করে।

১৯৭৮ – জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে বর্ণবাদবিরোধী বিশেষ অধিবেশন অনষ্ঠিত হয়।

১৯৮৯ – তিব্বতের রাজধানী লাসায় অবস্থিত পোতালা প্রাসাদের মেরামত প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। এই প্রকল্পে চীন সরকার ৩ দশমিক ৫ কোটি ইউয়ান বরাদ্দ করে।

১৯৯১ – সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙ্গে পড়ার কিছু আগে দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা কেজেবির তৎপরতা বন্ধ করে দেয়া হয়।

২০০০ – লন্ডনে প্রথমবারের মত একটি মুসলিম মাধ্যমিক স্কুলকে সরকারী হিসাবে অনুমোদন দেয়া হয়।

২০০০ – চীনের ইনজিনিয়ারীন , প্রযুক্তি ও বিজ্ঞান মহলের সবচেয়ে বড় আকারের এবং সবচেয়ে উচ্চ পর্যায়ের আন্তর্জাতিক সম্মেলন – আন্তর্জাতিক ইনজিনিয়ারীন, প্রযুক্তি ও বিজ্ঞান সম্মেলন পেইচিংএর গণ মহা ভবনে মহাসমারোহে অনুষ্ঠিত হয়।

২০০১ – চীনের রাষ্ট্রীয় মানদন্ডকরণ ব্যবস্থাপনা কমিটি পেইচিংএ প্রতিষ্ঠিত হয়।

২০০২ – চীনের ছ’টি বে-সামরিক বিমান পরিবহণ লিমিটেড কোম্পানি প্রতিষ্ঠার ঘোষণা করা হয়।

জন্ম:

১৬১৬ – আন্দ্রিয়াস গ্রয়ফিউস, তিনি ছিলেন জার্মান কবি ও নাট্যকার।

১৭৩৮ – আর্থার ফিলিপ, তিনি ছিলেন ইংরেজ এডমিরাল ও রাজনীতিবিদ।

১৮৭১ – আব্দুল করিম, তিনি ছিলেন পুঁথি সংগ্রাহক, লেখক ও সাহিত্য বিশারদ।

১৮৭৭ – চারুচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়, তিনি ছিলেন সাহিত্যিক সমালোচক ।

১৮৮৪ – ফ্রেডরিখ কার্ল রুডলফ বার্জিয়াস, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী জার্মান বংশোদ্ভূত আর্জেন্টিনার রসায়নবিদ।

১৮৮৪ – আন্না এলিয়ানর রুজভেল্ট, তিনি ছিলেন আমেরিকান মানবাধিকার কর্মী, রাজনীতিবিদ ও ৩৯ তম ফার্স্ট লেডি।

১৮৮৫ – ফ্রাসোয়া মাউরিয়াক, তিনি ছিলেন নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ফরাসি লেখক, কবি ও নাট্যকার।

১৯২১ – নীলিমা ইব্রাহিম, তিনি ছিলেন বাঙালি শিক্ষাবিদ।

১৯৩৬ – সি. গর্ডন ফুলেরটন, তিনি আমেরিকান কর্নেল, প্রকৌশলী ও মহাকাশচারী।

১৯৪২ – অমিতাভ বচ্চন, তিনি জনপ্রিয় ভারতীয় অভিনেতা।

১৯৫৭ – পল বওন, তিনি ইংরেজ অভিনেতা।

১৯৬৫ – রনিত রায়, তিনি ভারতীয় জনপ্রিয় ধারাবাহিক আদালতের অভিনেতা।

১৯৭৩ – তাকেশি কানেসিরো, তিনি জাপানি অভিনেতা ও গায়ক।

১৯৮৩ – ব্র্যাডলি জেমস, তিনি ইংরেজ অভিনেতা।

মৃত্যু:

১৮৫২ -গটথল্ড আইজেনস্টাইন, তিনি ছিলেন জার্মান গণিতবিদ ও অধ্যাপক।

১৮৯৬ -অ্যান্টন ব্রুকনার, তিনি ছিলেন অস্ট্রিয়ান অর্গানবাদক, সুরকার ও শিক্ষাবিদ।

১৯৩৮ -নগেন্দ্রনাথ বসু, তিনি ছিলেন বাংলা বিশ্বকোষের প্রথম প্রণেতা।

১৯৪০ -লুলুইস কোম্পানিস, তিনি ছিলেন স্প্যানিশ আইনজীবী, রাজনীতিবিদ ও কাতালোনিয়ার ১২৩ তম রাষ্ট্রপতি।

১৯৪০ -জাঁ ককতো, তিনি ছিলেন ভিটো ভল্টেরা, তিনি ছিলেন ইতালীয় গণিতবিদ ও পদার্থবিজ্ঞানী।

১৯৮৮ -বনিটা গ্রানভিলে, তিনি ছিলেন আমেরিকান অভিনেত্রী, গায়ক ও প্রযোজক।

১৯৯১ -গোলাম সামদানী কোরায়শী, তিনি ছিলেন বাংলাদেশের একজন বিশিষ্ট সহিত্যিক, গবেষক ও অনুবাদক।

১৯৯৬ -উইলিয়াম ভিখর, তিনি ছিলেন নোবেলজয়ী কানাডীয় অর্থনীতিবিদ।

২০০৭ -শ্রী চিন্ময়, তিনি ছিলেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত আমেরিকান আধ্যাত্মিক নেতা ও কবি।

২০১২ -ফ্রাঙ্ক আলমো, তিনি ছিলেন ফরাসি গায়ক।

দিবস: আন্তর্জাতিক মেয়ে শিশু দিবস।

এন এইচ, ১১ অক্টোবর

Back to top button