কুড়িগ্রাম

বাংলাদেশে ঢুকে বাড়িতে বিএসএফের হামলা, পরে ভুল স্বীকার!

কুড়িগ্রাম, ৯ অক্টোবর – কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী সীমান্তে আন্তর্জাতিক আইন অমান্য করে বাংলাদেশে ঢুকে একটি বাড়িতে হামলা চালিয়েছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলা সদর ইউনিয়নের উত্তর কুটিচন্দ্রখানা নাখারজান গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় বিএসএফের টানা-হেঁচড়ায় বাড়ির মালিক আহত হন। পরে বিষয়টি নিয়ে বিজিবি-বিএসএফের পতাকা বৈঠক হয়। রাতের অন্ধকারে চোরাকারবারিদের ধাওয়া করতে গিয়ে ভুলবশত বাংলাদেশে প্রবেশ করার দাবি করেছে ভারতীয় বাহিনী। এ ঘটনায় তারা ভুল স্বীকারও করেছে।

স্থানীয় জায়দুল হক জানান, রাত সাড়ে ৯টার দিকে সীমান্তে আন্তর্জাতিক ৯৪১ নম্বর মেইন পিলারের কাছে দু’দেশের মাদক চোরাকারবারিরা মালপত্র পার করার সময় ভারতের সেউটি-২ ছাবরি ক্যাম্পের টহলরত বিএসএফ সদস্যরা তাদের ধাওয়া করেন। চোরাকারবারিরা ধাওয়া খেয়ে বাংলাদেশের নাখারজান গ্রামে ঢুকে পড়ে। এ সময় বিএসএফের সদস্যরা তাদের পিছু নেন। পরে ওই গ্রামের নিরীহ রফিকুল ইসলামের বাড়িতে চোরাকারবারিরা থাকতে পারে সন্দেহ করে গেট খোলার জন্য চাপ দেন বিএসএফ সদস্যরা। একপর্যায়ে রফিকুলের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বাড়ির গেট ও টিনের ভেড়া ভেঙে প্রবেশ করেন তারা। গালাগাল করে পরিবারটিকে। পরে এলাকার লোকজন এগিয়ে এলে বিএসএফের সদস্যরা দ্রুত তাদের ভূখণ্ডে প্রবেশ করেন। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে বিজিবিকে অবগত করে এলাকাবাসী।

বিজিবি দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিএসএফকে কড়া প্রতিবাদ জানায়। ভুক্তভোগী রফিকুল ইসলাম বলেন, বিএসএফকে বলেছি- মাদক চোরাকারবারিরা আমার বাড়িতে প্রবেশ করেনি। তারপরও হামলা চালিয়েছে তারা। পরিবারের সদস্যদের গালাগালও করেছে। এ প্রসঙ্গে লালমনিরহাট ১৫ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল এসএম তৌহিদুল আলম বলেন, ভুলবশত বিএসএফ বাংলাদেশে প্রবেশ করার দাবি করে। আমরা প্রতিবাদ জানানোয় শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে ওই সীমান্তে পতাকা বৈঠক হয়। তারা ভুল স্বীকার করেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

সূত্র: বিডি২৪লাইভ
এম ইউ/০৯ অক্টোবর ২০২১

Back to top button

This will close in 20 seconds