ব্যবসা

পুঁজিবাজারে আইপিওতে আসবে তিন কোম্পানি

ঢাকা, ০৯ অক্টোবর – দেশের পুঁজিবাজারে আইপিওতে ( ইনিশিয়াল পাবলিক অফারিং) আসবে তিন কোম্পানি। তিনটি কোম্পানির মধ্যে দুটি কোম্পনি আসবে বুক বিল্ডিংপদ্ধতিতে এবং একটি আসবে ফিক্সড প্রাইস পদ্ধতিতে। বুক বিল্ডিংপদ্ধতিতে আসার অপেক্ষায় থাকা কোম্পানিগুলো হলো এশিয়াটিক ল্যাবরেটরিজ, ইসলাম অক্সিজেন এবং ফিক্সড প্রাইস পদ্ধতিতে আসবে মেঘনা ইন্সুরেন্স।

এশিয়াটিক ল্যাবরেটরিজ: বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজারেআসবেএশিয়াটিক ল্যাবরেটরিজ। আগামী ২৪ শে অক্টোবর হোটেল রেডিসনে সন্ধ্যা ৭ টায় রোডশো করবে কোম্পানিটি। কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে শাহজালাল ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট এবং রেজিষ্ট্রার টু দ্যা ইস্যুারের দায়িত্বে রয়েছে বি এমসএল ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

ইসলাম অক্সিজেন: বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে আসার অপেক্ষায় থাকা আরেকটি কোম্পনি হলো ইসলাম অক্সিজেন। এজন্য আগামী ২৫ শে অক্টোবর রাজধানীর হোটেল রেডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনে রোড শো করবে কোম্পানিটি।

ইসলাম অক্সিজেন এর ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে জনতা ক্যাপিটাল এন্ড ইনভেষ্টমেন্ট ম্যানেজমেন্ট এবং ইসুয়্যারের দায়িত্বে রয়েছে সোনালী ইনভেষ্টমেন্ট লিমিটেড। কোম্পনি গুলোর রোড শোতে মার্চেন্ট ব্যাংকার্স এবং পোর্টফলিও ম্যানেজার, এসেটম্যানেজার, মিউচ্যুয়াল ফান্ড অ্যান্ড কালেক্টিভ ইনভেস্টমেন্ট স্কিম, স্টক ডিলার, ব্যাংক, আর্থিকপ্রতিষ্ঠান, বীমা কোম্পানি, ফান্ড ম্যানেজার, অল্টারনেটিভ ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড, বিদেশি বিনিয়োগকারীসহ যোগ্য বিনিয়োগকারীদের উপস্থিত থাকার জন্য কোম্পানিগুলোর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

বিএসইসির (বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন) এর আইন অনুযায়ী বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে প্রতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা কোম্পনির কাট অফ প্রাইস নির্ধারণ করেন। কাট অফ প্রাইসের চেয়ে ১০ শতাংশ কমে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা সেই শেয়ার পেয়ে থাকেন।

মেঘনা ইন্সুরেন্স: ফিক্সড প্রাইস পদ্ধতিতে পুঁজিবাজারে আসবে বীমা খাতের মেঘনা ইন্সুরেন্স। কোম্পনিটি বাজার থেকে ১৬ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। কোম্পনিটি বাজারে ১ কোটি ৬০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ১৬কোটি টাকা উত্তোলন করবে। ২০২১ সালের ৩১ শে মার্চ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পনিটির শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে ১ টাকা ১১ পয়সা। সমাপ্ত হিসাব বছরে শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য ছিলো ১৬ টাকা ৪১ পয়সা। কোম্পানিটির ইস্যু ব্যাবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে ‍ প্রাইম ব্যাংক ইনভেষ্টমেন্ট, ইউসিবি ইনভেষ্টেমন্ট ও এশিয়ান টাইগার ক্যাপিটাল পার্টনার ইনভেষ্টমেন্ট লিমিটেড।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ০৯ অক্টোবর

Back to top button