ফুটবল

ড্র মেনে নিচ্ছেন আর্জেন্টিনা কোচ

গত জুনে প্যারাগুয়েকে কোপা আমেরিকার গ্রুপ পর্বে ১-০ গোলে হারিয়েছিল আর্জেন্টিনা। সব বাধা পেরিয়ে ওই আসরে চ্যাম্পিয়নও হয় তারা। কিন্তু কাতার বিশ্বকাপের দক্ষিণ আমেরিকান অঞ্চলের বাছাইয়ে প্যারাগুয়ে অপ্রতিরোধ্য। টানা দ্বিতীয় ড্র করল আর্জেন্টিনা। অনেক সুযোগ তৈরি করেও গোলের দেখা পায়নি তারা। আর এই ফলকে মেনে নিচ্ছেন কোচ লিওনেল স্কালোনি।

৯ ম্যাচে ৫ জয় ও ৪ ড্রয়ে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আর্জেন্টিনা। শীর্ষ দল ব্রাজিলের (২৭) সঙ্গে তাদের ব্যবধান বেড়ে দাঁড়াল ৮ পয়েন্টে। আর মাত্র দুটি ম্যাচ জেতা প্যারাগুয়ে ষষ্ঠ ড্রয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে ছয় নম্বরে। শীর্ষ চারটি দল সরাসরি খেলবে বিশ্বকাপে, আর পঞ্চম দলকে খেলতে হবে প্লে অফ।

প্রথমার্ধে গোলের একাধিক সুযোগ পেয়েছিল আর্জেন্টিনা। জোয়াকুইন কোরেয়া ও অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া তা গোলে পরিণত করতে পারেননি। কোরেয়াকে গোলকিপার রুখে দেন। আর পেনাল্টি এরিয়ার মধ্যে হুড়োহুড়ি করতে গিয়ে সুযোগ নষ্ট করেন ডি মারিয়া। দ্বিতীয়ার্ধেও কয়েকবার গোলমুখের সামনে গিয়ে ব্যর্থ আর্জেন্টিনা।

গোলশূন্য ড্রয়ের পর স্কালোনি বললেন দলের পারফরম্যান্স প্রসঙ্গে, ‘প্রথমার্ধটা বলতে গেলে আমাদের ছিল, দ্বিতীয়ার্ধ সমান সমান। কিন্তু আমরা ছিলাম অনেক এগিয়ে এবং ম্যাচে দাপট দেখিয়েছি। কোয়ালিফায়ার কঠিন এবং তারা (খেলোয়াড়রা) প্যারাগুয়েকে খেলা কতটা কঠিন তা উপলব্ধি করতে পারে। আমি মনে করি অনুভূতিটা ভালো এবং এটা আমাদের শান্ত রাখছে। আমরা গোলের সুযোগ নষ্ট করেছি, বিশেষ করে খুব কাছাকাছি থেকে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হলো দল কখনো হাল না ছেড়ে চেষ্টা করে গেছে।’

কোপার ম্যাচের আগেও প্যারাগুয়েকে কঠিন ও অস্বস্তিকর দল বলেছিলেন আর্জেন্টিনা কোচ। এবারো তার কণ্ঠে একই সুর, ‘খুব কঠিন প্রতিপক্ষ। তারা আমাদের আক্রমণের ধরন দেখে খেলার কৌশল পাল্টেছে। প্রতিপক্ষরা ভিন্নভাবে খেলে, তারা সবসময় আর্জেন্টিনার বিপক্ষে জিততে চায় এবং সামনেও যে একইভাবে তারা খেলবে, তাতে অভ্যস্ত হতে হবে।’

স্কালোনি আরো বলেন, ‘আমরা অনেক পাস খেলেছি, অনেক সুযোগ তৈরি করেছি। তারপর আমরা গতি বাড়ালাম কারণ খেলাটা উন্মুক্ত হয়ে গেল। ফুটবলে মাঝেমধ্যে আপনি এগিয়ে থাকলেও ফল আপনার পক্ষে যায় না। আমরা জানতাম প্যারাগুয়ে কেমন খেলে, তারা চাপে রাখে। দল সেই চাপ কাটিয়ে সুযোগ তৈরি করেছিল গোলের। প্যারাগুয়ে সবার জন্য অস্বস্তিকর, শুধু আর্জেন্টিনার জন্য নয়।’

এখন সামনের ম্যাচে চোখ স্কালোনির, ‘আমরা জানতাম প্রতিপক্ষ কঠিন হতে যাচ্ছে। দুই দিনের মধ্যে আমাদের আরেকটি ম্যাচ এবং খেলোয়াড়দের প্রাণবন্ত সতেজ রাখা গুরুত্বপূর্ণ যেন দলে জায়গা পাওয়া প্রত্যেকে অবদান রাখে।’

আগামী সোমবার উরুগুয়ের বিপক্ষে ঘরের মাঠে খেলবে আর্জেন্টিনা।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ০৮ অক্টোবর

Back to top button