ফুটবল

৫ গোলের ম্যাচে বেলজিয়ামকে হারিয়ে ফাইনালে ফ্রান্স

প্রথমার্ধে কারাসকো ও রোমেরো লুকাকুর গোলে সহজ জয়ে ফাইনালের আশা দেখছিল বেলজিয়াম। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে এমবাপ্পে-বেনজেমার নৈপুণ্যে ফ্রান্স সেই স্বপ্ন শেষ পর্যন্ত সত্যি হতে দেয়নি। শুরুর দুই গোল তো শোধ দিয়েছেই। শেষ মুহুর্তে তৃতীয় গোল করে নেশন্স লিগের ফাইনাল নিশ্চিত করেছে দিদিয়ের দেশমের শিষ্যরা। পাঁচ গোলের রোমাঞ্চে ভরা দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ফ্রান্স ৩-২ গোলে হারিয়েছে বেলজিয়ামকে। আগামী ১১ অক্টোবর নেশন্স লিগের ফাইনালে ট্রফি জয়ের লড়াইয়ে ফ্রান্সের প্রতিপক্ষ স্পেন।

বৃহস্পতিবার আলিয়াঞ্জ এরিনার ম্যাচে বল দখলে দুই দল প্রায় সমানে সমান। ম্যাচের প্রথমার্ধে আক্রমণ-পাল্টাপাল্টি আক্রমণে দুই দলই গোলের সুযোগ পায়। কিন্তু কোনো দলই গোল করতে পারছিল না। অবশেষে ৩৭ মিনিটে বাঁম প্রান্ত দিয়ে বক্সে ঢুকে দুই ডিফেন্ডারকে ফাঁকি দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন কারাসকো। গোলকিপার জায়গা থেকে নড়ার সুযোগ পাননি। বল তার ডান পাশ দিয়ে সহজেই জালে জড়ায়।

তিন মিনিট পর রোমেরো লুকাকু ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। ডান প্রান্ত দিয়ে বক্সে ঢুকে দুরূহ কোনা দিয়ে জালের দেখা পান এই স্ট্রাইকার। ৪৪ মিনিটে হ্যাজার্ডের জোরালো শট গোলকিপার তালুবন্দি করে আর ব্যবধান বাড়াতে দেননি। দুই গোলে পিছিয়ে থেকে বিরতিতে যায় ফ্রান্স।

বিরতির পর ৬২ মিনিটে এমবাপ্পের পাশে করিম বেনজেমাসহ চার ডিফেন্ডার ঘিরে দাঁড়ালেও দারুণ নিচু শটে গোল করে ব্যবধান কমান করিম বেনজেমা। পাঁচ মিনিট পর গ্রিজমানকে ডি-বক্সে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় ফ্রান্স। পেনাল্টি থেকে গোল করে ম্যাচে সমতা ফিরিয়ে আনে এমবাপ্পে। এরপর বেলজিয়াম আবারও ৭৩ ও ৮৩ মিনিটে গোলের সুযোগ পায়।

৭৩ মিনিটে ডি ব্রুইনের শট ক্রস বারের ওপর দিয়ে যায়। আর ৮৭ মিনিটে কারাসকোর নিচু ক্রসে রোমেরো লুকাকু প্লেসিং করে বল জালে জড়ালেও অফসাইডের কারণে গোলের বাঁশি বাজেনি।

৯০ মিনিটে পল পগবার ফ্রি-কিক ক্রস বারের কোনায় লেগে প্রতিহত হয়। তবে একই মিনিটে ফ্রান্স তৃতীয় লক্ষ্যভেদ করে ফাইনালে জায়গা করে নেয়। হেরেনান্দেজ বক্সের প্রান্ত থেকে জোরালো শটে জাল কাঁপালে দলের ফাইনাল নিশ্চিত হয়।

সূত্র : বাংলাদেশ জার্নাল
এন এইচ, ০৮ অক্টোবর

Back to top button