ক্রিকেট

নতুন স্পিডস্টার পেল ভারতীয় ক্রিকেট

আবুধাবি, ০৭ অক্টোবর – ঘরোয়া ক্রিকেট খেলার তেমন একটা অভিজ্ঞতা নেই। অথচ আইপিএলের অভিষেকেই অবিশ্বাস্য নজির গড়লেন উমরান মালিক। কলকাতা নাইট রাইডার্স বনাম সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ম্যাচে ভারতীয় ক্রিকেট পেল নতুন স্পিডস্টার। বল করলেন ১৫০ কিমি প্রতি ঘণ্টা গতিবেগে। অনেকেই তাকে ডাকতে শুরু করেছেন ভারতের শোয়েব আখতার বলে। ভারতীয় মিডিয়া উমরানকে ডাকছে ‘জম্মু এক্সপ্রেস’ নামে।

জম্মু-কাশ্মীরের হয়ে এখনও পর্যন্ত ১টি মাত্র লিস্ট-এ ও ১টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন উমরান। কোনও ফার্স্ট ক্লাস ম্যাচ খেলেননি তিনি। টি-২০তে ৩টি ও লিস্ট-এ ক্রিকেটে ১টি, সাকুল্যে ৪টি উইকেট রয়েছে তার ঝুলিতে। এমন আনকোরা পেসারকে নেট বোলার হিসেবেই স্কোয়াডের সঙ্গে রেখেছিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। তবে টি নটরাজন করোনা আক্রান্ত হওয়ায় তার সাময়িক পরিবর্তন হিসেবে উমরানকে মূল স্কোয়াডের অন্তর্ভুক্ত করে হায়দরাবাদ।

কলকাতার বিপক্ষেই আইপিএল অভিষেক হয় ডানহাতি এই পেসারের। নিজের প্রথম ওভারেই ১৫০ কিলোমিটার গতিতে বল করে চমকে দেন তিনি। পরে ১৫১.০৩ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টায় একটি বল করেন উমরান। এতে চলতি আইপিএলে সবথেকে জোরে বল করা ভারতীয় ক্রিকেটারে পরিণত হন ২১ বছরের বয়সী এই পেসার। তিনি ভেঙে দেন এবারের আইপিএলে মোহাম্মদ সিরাজের ১৪৭.৬৮ কিলোমিটার গতিতে বল করার নজির।

সেরা গতিবেগ স্পর্শ করে প্রশংসায় ভাসছেন উমরান। ক্রিকেট বিশ্লেষক, সাবেক ক্রিকেটার থেকে শুরু করে বর্তমান ক্রিকেটাররাও উমরানের গতিতে মুগ্ধ। সবার প্রশংসা পেয়ে গর্বিত মালিকের পরিবারও।

উমরানের বাবা একজন সাধারণ কৃষক। মাঠের সবজি বাজারে বিক্রি করেই রোজগার করেন করেন তিনি। ছেলের এই সাফল্য দেখে কান্না থামাতে পারেননি বাবা আব্দুল রশীদ। ভারতীয় গণমাধ্যমে তিনি বলেন, ‘আমার ছেলে তিন বছর বয়স থেকে বল হাতে তুলে নিয়েছে। দিনরাত্রি অনুশীলন করে গেছে। তাকে টিভির পর্দায় দেখে সত্যি আনন্দের শেষ নেই আমার। আজ এটা আমার চোখের আনন্দের অশ্রু। যেদিন সানরাইজ হায়দ্রাবাদ শিবির অকশনে ওকে নিজেদের দলে জায়গা করেছিল সেদিন আমার আনন্দের সীমা ছিল না। আর আজ তাকে খেলতে দেখে অশ্রু ধরে রাখতে পারলাম না।’

উমরানের সাফল্যে উচ্ছ্বসিত জম্মু ও কাশ্মীর। তার বাবার চাওয়া, ছেলে যেন সামনে আরো ভালো খেলতে পারে এবং ভারতকে গর্বিত করতে পারে।

আগামী দিনে গতিদানব হয়ে ওঠার যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে উমরানের মধ্যে। যদিও এবারের মত প্লে-অফে পৌঁছানোর আশা শেষ সানরাইজার্সের। তবে ভারতকে তারা দিয়েছেন এক বড় উপহার। এর আগেও ভারতকে একাধিক তারকা উপহার দিয়েছে হায়দরাবাদ। যাদের অনেকেই এখন ভারতীয় দলের নিয়মিত সদস্য।

সূত্র : সমকাল
এন এইচ, ০৭ অক্টোবর

Back to top button