বিচিত্রতা

এক বোতল পানির দাম ৫১ লাখ টাকা!

ভারতীয় ধনকুবের মুকেশ আম্বানি সারা বিশ্বেই সুপরিচিত। তবে তার স্ত্রী নীতা আম্বানিও কম যান না । নীতা বরাবরই তার রাজকীয় জীবনধারা এবং বিলাসবহুল শখের জন্য আলাদা পরিচিত পেয়েছেন। কোটি টাকার শাড়ি পরা, লাখ টাকার চা খাওয়া কিংবা দামি জুতা ব্যবহারের কারণে নীতাকে নিয়ে আলাদাভাবেই চর্চা হয়।

ভারতীয়গণমাধ্যম আন্দবাজারের প্রতিবেদন অনুয়ায়ী, বলা হয়, নীতা আম্বানি এমনই জীবনযাপন করেন যে তার সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারে এমন কেউ নেই।

দাবি করা হয়, নীতা নাকি বিশ্বের সবচেয়ে দামি পানি খান। ৭৫০ মিলিলিটার আকৃতির এই পানির বোতলের দাম প্রায় ৬০ হাজার ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার দাম পড়ে ৫১ লাখ টাকারও বেশি। তা হলে নীতা যে পানি খান তার এক ঢোক পানির দাম কত পড়বে ভাবতেই চোখ কপালে উঠবে সবার।

নিজেকে ফি ও তরতাজা রাখতে নীতা যে পানি খান তার নাম ‘অ্যাকোয়া ডি ক্রিস্টালো ট্রিবিউটো আ মডিগলিয়ানি’। এটি বিশ্বের সবচেয়ে দামি পানির মধ্যে একটি। বোতলবন্দি এই পানি আসে ফ্রান্স এবং ফিজি থেকে। দাবি করা হয়, এই পানীয় জলে ৫ গ্রাম সোনার ছাই মেলানো থাকে। যা মানবদেহের পক্ষে খুবই স্বাস্থ্যকর। সে জন্যই এই পানির দাম এত।

অবশ্য এই পানির এত দামের আরও কারণ আছে। শুধু পানি নয়, বোতলের জন্যও এই পানীয় জলের দাম এত বেশি। ২০১০-এ ‘অ্যাকোয়া ডি ক্রিস্টালো ট্রিবিউটো আ মডিগলিয়ানি’ গিনেজ বুকে বিশ্বের সবচেয়ে দামি পানির বোতল হিসেবে খ্যাতি পেয়েছিল। বোতলের নকশা তৈরি করেছিলেন ফার্নান্দো আলতামিরানো। চামড়ার খাপে থাকা এই বোতল খাঁটি স্বর্ণের তৈরি। এই ব্র্যান্ডের সবচেয়ে সস্তা বোতলের দাম ২২ হাজার রুপি।

এন এইচ, ০৬ অক্টোবর

Back to top button