ক্রিকেট

বিসিবি নির্বাচনে ১৬ পদের বিপরীতে ২৪ প্রার্থী

ঢাকা, ০৬ অক্টোবর – মিরপুর হোম অব ক্রিকেটে আসলেই চোখে পড়বে বড় বড় ব্যানার, ফেস্টুন। বিসিবির পরিচালক পদপ্রার্থীদের ছবিসম্বলিত ব্যানারে ভোট চেয়ে অনুরোধ করা হয়েছে কাউন্সিলরদের প্রতি। নির্বাচনী আবহ বিরাজ করছে স্টেডিয়াম জুড়ে। শুধু কি মিরপুরেই নির্বাচনী উত্তাপ! সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রার্থী, ভক্ত, সমর্থকরা টাইমলাইনে পোস্ট করছেন নির্বাচনী কার্ড।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালনা পরিষদ নির্বাচন হবে বুধবার (৬ অক্টোবর)। বিসিবির পরিচালনা পরিষদে থাকবেন ২৫ পরিচালক। দুজন আসছেন জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের মনোনয়নে। বাকি ২৩ পদে নির্বাচন হওয়ার কথা। কিন্তু ক্যাটাগরি-১ (বিভাগ ও জেলা) থেকে এরই মধ্যে সাত কাউন্সিলর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। ফলে, বুধবার নির্বাচন হবে ১৬ পদের জন্য।

তিনটি ক্যাটাগরি থেকে মোট প্রার্থী ২৪ জন। ১৭১ কাউন্সিলর থাকলেও নির্বাচনে ভোট দেবেন ১২৭ জন। মিরপুরে বিসিবি কার্যালয়ে বোর্ড সভা কক্ষে ভোট হবে। সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে নির্বাচন।

প্রিসাইডিং অফিসার এস এম কবিরুল হাসান গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘সব প্রস্তুতি সম্পন্ন। সব মিলিয়ে ১২৭ জন ভোট দেবেন। মোট ভোটার ১৭১ জন। বাকিরা ভোট দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছে না। কারণ, ওখানে নির্বাচিত হয়ে গেছে। ৫৭ জন ই-ভোট ও পোস্টাল ব্যালটে ভোট দেবেন। বাকিরা সশরীরে এসে ভোট দেবেন।’

ক্যাটাগরি-১ থেকে ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগে নির্বাচন হবে। ঢাকা বিভাগ থেকে পরিচালক হবেন দুজন। রাজশাহী থেকে একজন। ঢাকায় দুই পদের বিপরীতে প্রার্থী চারজন। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সময় শেষ হওয়ার পরও নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন খালিদ হোসেন। মাদারীপুরের এই সংগঠক ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেও ব‌্যালট পেপারে তার নাম ও নম্বর থাকবে। খালিদ হোসেন সরে যাওয়ায় এই বিভাগে দুটি পদের জন্য এখন প্রার্থী রইলেন তানভীর আহমেদ টিটু (নারায়ণগঞ্জ), নাঈমুর রহমান দুর্জয় (মানিকগঞ্জ) ও সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটু (কিশোরগঞ্জ)। শোনা যাচ্ছে, আশফাকুল ইসলাম টিটুও ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে সরে যাচ্ছেন। এই বিভাগের ১৮ জন কাউন্সিলর বেছে নেবেন যেকোনো দুজনকে। রাজশাহীতে পদ একটি। নির্বাচনে লড়বেন সাইফুল আলম চৌধুরী স্বপন ও সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট। এবারই প্রথম নির্বাচন করছেন পাইলট। এই বিভাগের ৯ জন কাউন্সিলর বেছে নেবেন যেকোনো একজনকে।

ক্লাব ক্যাটাগরিতেই জমজমাট নির্বাচনের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। সবচেয়ে বেশি ১২ পরিচালক নির্বাচিত হন ক্লাব ক্যাটাগরি থেকে। এসব পদের জন্য এবার লড়ছেন ১৬ কাউন্সিলর। ক্লাব ক্রিকেটের হেভিওয়েট প্রার্থীসহ এবার নতুন কয়েকজন সংগঠকও নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। মোট ৫৭ জন কাউন্সিলরের ভোটে এখান থেকে ১২ পরিচালক নির্বাচিত হবেন, বাদ পড়বেন চার প্রার্থী।

এছাড়া, ক্যাটাগরি-৩ থেকে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন দুই অতিপরিচিত প্রার্থী—নাজমুল আবেদীন ফাহিম ও খালেদ মাহমুদ সুজন। ৪৩ জন কাউন্সিলর বেছে নেবেন যেকোনো একজনকে।

প্রিসাইডিং অফিসার এস এম কবিরুল হাসান বলেছেন, ‘বেসরকারিভাবে বুধবার ফল ঘোষণা করা হবে। সরকারিভাবে পরের দিন ঘোষণা করা হবে।’

প্রসঙ্গত, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এরই মধ্যে পরিচালক নির্বাচিত হয়েছেন সিলেট থেকে শফিউল আলম চৌধুরী, চট্টগ্রাম থেকে আকরাম খান ও আ জ ম নাসির, খুলনা থেকে শেখ সোহেল ও কাজী ইনাম আহমেদ, বরিশাল থেকে আলমগীর খান ও রংপুর থেকে অ্যাডভোকেট আনোয়ারুল ইসলাম। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ থেকে মনোনীত হয়েছেন আহমেদ সাজ্জাদুল আলম ও জালাল ইউনুস।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ০৬ অক্টোবর

Back to top button