বলিউড

জামিন পেলেন না শাহরুখ পুত্র

মুম্বাই, ০৫ অক্টোবর – জামিন পাননি বলিউড বাদশা শাহরুখ খানের বড় ছেলে আরিয়ান খান।

সোমবার (৪ অক্টোবর) মুম্বাইয়ের আদালতে হাজির করা হয় আরিয়ানকে। এ সময় তার আইনজীবী জামিন আবেদন করলে তা নাকচ করে দেন আদালত। পাশাপাশি নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ৭ অক্টোবর পর্যন্ত তাদের হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। ইন্ডিয়া টুডে এ খবর প্রকাশ করেছে।

আরিয়ান ছাড়াও এদিন তার বন্ধু আরবাজ, মুনমুনসহ আরো ৬ জনকে আদালতে হাজির করে এনসিবি। যার মধ্যে একজনকে আজ সকালে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার কাছ থেকেও বেশ ভালো পরিমাণ মাদক উদ্ধার হয়েছে বলে আদালতকে জানিয়েছেন অ্যাডিশনাল সলিসিটার জেনারেল অনিল সিং।

আদালতের কাছে অনিল সিং বলেন, ‘এনসিবি-এর পক্ষ থেকে আরিয়ানের ফোন আটক করা হয়েছে। সেখানে অনেক সন্দেহজনক চ্যাট আছে যা দেখে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে মাদক ডিলারদের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল আরিয়ানের। তাই সকলকে একসঙ্গে বসিয়ে এনসিবি-এর দপ্তরে জিজ্ঞাসাবাদ প্রয়োজন।’

অনিল সিং জামিনের বিরোধিতা করে আদালতকে বলেন, ‘আরিয়ানের বিরুদ্ধে পাওয়া সব প্রমাণ এনডিপিএস অ্যাক্ট অনুসারে শাস্তিযোগ্য ও রিয়া চক্রবর্তীর কেস অনুসারে জামিন অযোগ্য অপরাধ। অভিযুক্তদের মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা খুব প্রয়োজন। কারণ, চ্যাট থেকে বেশ কিছু সাংকেতিক নাম পাওয়া গিয়েছে, যা মাদক পাচারকারীদের সঙ্গে চ্যাট করার সময় ব্যবহরা করা হয়।’

আরিয়ান খানের আইনজীবী সতীশ মানেশিন্দে বলেন, ‘আরিয়ানের সঙ্গে কোনো মাদক পাচারকারী বা এই ধরনের কোনো সংস্থার যোগাযোগ নেই। এমনকি তার ব্যাগ থেকেও কিছু উদ্ধার হয়নি। নিষিদ্ধ বস্তু হিসেবে যেগুলো ধার্য করা করা হয় যেমন চরস বা এমডি তার বা তার বন্ধুদের কাছ থেকেও পাওয়া যায়নি। আরবাজের কাছ থেকে যা পাওয়া গিয়েছে তা সামান্য। এনসিবি কেবল আরিয়ানের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের ওপর নির্ভর করতে পারে না।’

নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর অভিযোগ অস্বীকার করে আরিয়ান আদালতকে বলেন, ‘এনসিবি-এর পক্ষ থেকে আমাকে গত ৪৮ ঘণ্টা জেরা করা হয়েছে। কিন্তু আমার কাছ থেকে সন্দেহজনক কিছু পাওয়া যায়নি। আমার ২৪ বছরের জীবনে কোনো ক্রিমিনাল রেকর্ড নেই। আর আমি এনসিবি-এর সঙ্গে সমস্ত সহায়তা করেছি, যাতে আমাকে হেফাজতে নেওয়ার আবেদন আদালতে না-মঞ্জুর হয়।’

এন এইচ, ০৫ অক্টোবর

Back to top button