ক্রিকেট

মাস্কটে পৌঁছেছে বাংলাদেশ দল

মাস্কট, ০৪ অক্টোবর – উৎকণ্ঠা আর নাটকীয়তার অবসান ঘটিয়ে ওমানে পৌঁছেছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। সোমবার (৪ অক্টোব) ভোর ৬টার দিকে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদদের বহনকারী বিমান মাস্কটে পৌঁছায়।

এর আগে নানা দোলাচলের মধ্যে শেষ পর্যন্ত সব শঙ্কা কাটিয়ে রোববার দিবাগত রাত ১টা ৩০ মিনিটে লাল সবুজের প্রতিনিধিদের নিয়ে ওমানের পথে উড়াল দেয় বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইট।

পূর্বনির্ধারিত সময়নুযায়ী রাত ১০টা ৪৫ মিনিটে যাত্রার কথা ছিল। সেই অনুযায়ী ক্রিকেটারসহ সাপোর্টস্টাফরা ব্যাগপত্র গোচাচ্ছিলেন। কিন্তু বিকাল থেকে পরিস্থিতি নানা দিকে মোড় নিতে থাকে। অন্তর্জালে উড়ে বেড়াচ্ছিল নানা খবর, কখনো মনে হচ্ছে স্থগিত আবার কখনো বলা হচ্ছে যথা সময়েই হবে ফ্লাইট। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সংশ্লিষ্টসহ বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্স থেকেও সুনিদৃষ্ট কিছু জানাতে পারেনি। এতসব কিছু হচ্ছিল ওমানে আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড় শাহীনের কারণে।

এই শাহীনের এতটাই প্রভাব, ডুবে গেছে মাস্কটের নানা গুরুত্বপূর্ণ স্থান। তাই এত কাণ্ড। তবে স্বস্তির বিষয় হলো শেষ পর্যন্ত মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল মরুর দেশটিতে পা রেখেছে নিরাপদ ভাবেই।

সাকিব আল হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমান বাদে বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকা সদস্যরা ওমান যাত্রা করেন। আইপিএলে খেলার জন্য সাকিব-মোস্তাফিজ আরব আমিরাতে অবস্থান করছেন। তারা দুজন ৯ অক্টোবর আরব আমিরাতে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন।

ওমানে পৌঁছেই একদিন রুম কোয়ারেন্টাইনে চলে গেছে বাংলাদেশ দল। এরপর কাল ৫ অক্টোবর থেকে শুরু হবে অনুশীলন। চারদিন টানা অনুশীলনের পর ৯ অক্টোবর বাংলাদেশ দল যাবে সংযুক্ত আরব আমিরাতে। সেখানেও বাংলাদেশ দলকে একদিনের কোয়ারেন্টাইন করতে হবে। ১১ অক্টোবরই দল নামবে অনুশীলনে। এরপর ১২ ও ১৪ অক্টোবর দুইটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে মাহমুদউল্লাহর দল।

১৫ অক্টোবর বাংলাদেশ ফিরে যাবে ওমানে। সেখানেই আসল মিশন শুরু তাদের। এবার অবশ্য কোনো কোয়ারেন্টাইন লাগবে না ক্রিকেটারদের। বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ খেলতে হলে প্রথম পর্ব উতরাতে হবে বাংলাদেশকে। ১৭ অক্টোবর বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচে প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড। এরপর ১৯ ও ২১ অক্টোবর বাংলাদেশের লড়বে ওমান ও পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে।

বাছাইপর্বের বাধা উতরাতে পারলে বাংলাদেশ যাবে সুপার টুয়েলভে। সুপার টুয়েলভে উঠলে ২৫ অক্টোবর শারজাতে বাংলাদেশ-আফগানিস্তান ম্যাচ। ২৭ অক্টোবর বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ গ্রুপ ‘এ’-র রানার্সআপ দল। ৩ নভেম্বর দুবাইয়ে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ নিউ জিল্যান্ড। ৫ ও ৭ নভেম্বর খেলবে ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে। ম্যাচগুলো হবে দুবাই ও শারজাতে।

বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দল: মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), লিটন দাস, নাঈম শেখ, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, শেখ মেহেদী হাসান, শামীম হোসেন পাটোয়ারি, নাসুম আহমেদ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মোস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ।

স্ট্যান্ডবাই: রুবেল হোসেন, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ০৪ অক্টোবর

Back to top button