রাজবাড়ী

কাজ শেষ না হতেই ৩৭৬ কোটি টাকার প্রকল্পে ভাঙন

রাজবাড়ী, ০২ অক্টোবর – রাজবাড়ী জেলা শহরের গোদার বাজার ঘাট সংলগ্ন সিলিমপুর এলাকায় পদ্মা নদীর ভয়াবহ ভাঙন দেখা দিয়েছে। শুক্রবার (১ অক্টোবর) সন্ধ্যার পর থেকে এ ভাঙন শুরু হয়। ইতোমধ্যে কয়েক শত মিটার এলাকার নদী তীর রক্ষাবাঁধের সিসি ব্লক ধসে পানিতে বিলীন হয়ে গেছে। সেই সঙ্গে বেশ কয়েকটি বাড়ির ভিটেও নদীগর্ভে চলে গেছে।

বন্যা নিয়ন্ত্রণ শহর রক্ষা বেড়িবাঁধের ৬ ফুটের মধ্যে চলে এসেছে এখন প্রমত্তা পদ্মা। যে কারণে নদী তীরবর্তী মানুষদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। বর্তমানে ঘর ও মালামাল সরাতে ব্যস্ত সময় পার করছে ক্ষতিগ্রস্তরা।

স্থানীয়রা জানায়, মাত্র কয়েক মাস আগে ৩৭৬ কোটি টাকা ব্যয়ে এখানকার ছয় কিলোমিটার দীর্ঘ এলাকায় সিসি ব্লক দিয়ে স্থায়ীভাবে নদী তীর রক্ষার কাজ করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। ওই কাজ শেষ হতে না হতেই ১৯টি স্থানের সিসি ব্লক ধসে গিয়ে তা নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। তারা মনে করেন, নিম্নমানের কাজ করায় এই ক্ষতি হচ্ছে।

রাজবাড়ী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আহাদ জানিয়েছেন, নদীর গতিপথ পরিবর্তন এবং মাঝ নদীতে ডুব চরের সৃষ্টি হওয়ায় ভাঙন শুরু হয়েছে। যে কারণে তারা নদী তীর রক্ষা নতুন ডিজাইন তৈরি করেছেন। ওই ডিজাইনে কাজ করা এবং মাঝ নদী দিয়ে স্রোতধারা প্রবাহিত করা সম্ভব হলে ভাঙন প্রতিরোধ হবে।

সূত্র : কালের কণ্ঠ
এন এইচ, ০২ অক্টোবর

Back to top button