মডেলিং

‘পরিচালকের সঙ্গে রাত কাটাতে বলেছিল’

মুম্বাই, ০১ অক্টোবর – রুপালি জগতের আলোর ঝলকানির পেছনে অন্ধকার দিকও রয়েছে। প্রায়ই কাস্টিং কাউচ, যৌন হেনস্তা, স্বজনপ্রীতিসহ নানা অভিযোগ শোনা যায়। অতীতে এ বিষয়ে খুব বেশি আলোচনা না হলেও এখন অনেকে এসব নিয়ে মুখ খুলছেন। বিশেষ করে কাস্টিং কাউচ নিয়ে কথা বলেছেন ভারতের বিভিন্ন ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির অনেক তারকা অভিনয়শিল্পীরা।

ভারতের মডেল ও টেলিভিশন অভিনেত্রী স্নেহা জৈন। বেশ কিছু হিন্দ ধারাবাহিকে অভিনয় করে খ‌্যাতি কুড়িয়েছেন তিনি। এ অভিনেত্রীও কাস্টিং কাউচ অর্থাৎ কুপ্রস্তাব পেয়েছিলেন। দিন অনেক গড়ালেও বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন এই অভিনেত্রী।

ভারতীয় একটি সংবাদমাধ‌্যমে স্নেহা বলেন—‘‘এটি কোন বছর ঘটেছিল, তা সঠিকভাবে মনে করতে পারছি না। দক্ষিণী সিনেমার একজন কাস্ট্রিং ডিরেক্টরের ফোন কল আসে। সে আমাকে একটি সিনেমায় কাজের প্রস্তাব দেয়। চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করার জন‌্য আমি হায়দরাবাদে যাই। আমাকে আগেই জানানো হয়েছিল, সাইন করার সময়ে অর্ধেক পারিশ্রমিক দেবেন। কিন্তু হায়দরাবাদ যাওয়ার পর কাস্টিং ডিরেক্টর বলেন, ‘আপনাকে পরিচালকের সঙ্গে এক রাত কাটাতে হবে। তিনি যা বলেন তা শুনতে হবে। এরপরই অর্ধেক পারিশ্রমিক দেওয়া হবে।’ আমি তাকে বলেছিলাম, না সেটা সম্ভব না, আর এটা ঠিক না। আমি এ ধরনের সিনেমার অংশ হতে চাই না।’’

২০১৬ সালে ‘কৃষ্ণাদাসী’ ধারাবাহিক নাটকের মাধ‌্যমে অভিনয়ে নাম লেখান স্নেহা। ধারাবাহিকটির পুরবা দেশমুখ চরিত্রে কয়েকটি এপিসোডে কাজ করেন তিনি। ‘ক্রাইম পেট্রোল’-এর কিছু এপিসোডে কাজ করেন স্নেহা। বর্তমানে ‘সাথ নিভানা সাথিয়া-টু’ সিরিয়ালে অভিনয় করছেন এই অভিনেত্রী। গত বছর থেকে স্টার প্লাস টিভিতে প্রচার হচ্ছে এটি। গত জুনে নাটকটির ২০০তম পর্ব প্রচার হয়েছে।

এন এইচ, ০১ অক্টোবর

Back to top button