জাতীয়

‘মন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখে’ জেলে কাজী ইব্রাহীম

ঢাকা, ৩০ সেপ্টেম্বর – ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় দুই দিনের রিমান্ডে রয়েছেন মুফতি কাজী ইব্রাহীম। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে মোহাম্মদপুর থানায় তার বিরুদ্ধে এ মামলা হয়।

ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের (উত্তর) যুগ্ম কমিশনার মোহাম্মদ হারুন-অর-রশীদ জানিয়েছেন, মুফতি কাজী ইব্রাহীমকে জিজ্ঞাসাবাদে বেরিয়ে এসেছে উদ্ভট, বিভ্রান্তির কিছু তথ্য। তিনি বলেন, কাজী ইব্রাহীম যা যা বলেছেন, সবই নাকি তিনি স্বপ্নে দেখেন। স্বপ্ন দেখেছেন, তিনি মন্ত্রী হবেন।

হারুন-অর-রশীদ আরও বলেন, ‘গোয়েন্দা পুলিশের সাইবার ইউনিটের মাধ্যমে আমরা প্রতিদিনই কারা কী বলছে সবকিছুর খেয়াল রাখছি। কাজী ইব্রাহিম প্রায়ই বিভিন্ন ধরেনের বিভ্রান্তিমূলক তথ্য দিয়ে যাচ্ছিলেন। সামাজিক, অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক কোনো বিষয়েই তার কোনো গভীরতা নেই। সঠিক কোনো জ্ঞান না থাকার কারণে উনি যেখান থেকে যেটা পাচ্ছেন সেটার ওপরই কথা বলছেন।’

তিনি বলেন, ‘কাজী ইব্রাহীম বলেছেন উনি নাকি স্বপ্নে দেখেছেন তালেবানরা ক্ষমতায় আসবে। করোনা টিকা নিলে ছেলে মেয়ে হয়ে যাবে, মেয়ে ছেলে হয়ে যাবে। ইদানিং বলেছেন, যারাই কোরআন হাদিসের আলোকে কথা না বলে তারাই হয়ে যাবে হিন্দুস্তানি দালাল, তারা হয়ে যাবে র-এর দালাল। বিভিন্ন উদ্ভট, বিভ্রান্তিকর তথ্য সামাজিক মাধ্যম থেকে শুরু করে বিভিন্ন প্লাটফর্ম ব্যবহার করে, মসজিদে, বিভিন্ন জায়গায় বলে বলে মানুষকে বিভ্রান্ত করছেন।’

হারুন-অর-রশীদ বলেন, ‘ইব্রাহীম দাবি করেন, উনি যা বলেন সব কোরআন-হাদিসের আলোকে বলেন। উনি নাকি স্বপ্ন দেখেছেন উনি মন্ত্রী হবেন। উনি স্বপ্ন কীভাবে দেখেন? আসলে এইগুলো আমরা যাচাই-বাছাই করার জন্য উনাকে নিয়ে আসছিলাম। যখন আমরা কথা বললাম, উনি কোনো কথারই সন্তোষজনক জবাব দিতে পারেননি। উনার কথাগুলো এখনো এলোমেলো মনে হচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘যখন তাকে আমরা লালমাটিয়ার বাসা থেকে আনতে গেলাম তখনো তিনি লাইভে গিয়ে বলছিলেন যে আমরা যারা গিয়েছি আমরা নাকি হিন্দুস্তানি দালাল, আমরা নাকি র-এর এজেন্ট। এই ধরনের বিভ্রান্তিকর কথা তিনি প্রতিনিয়ত বলে যাচ্ছেন। এ কারণে আমরা তাকে নিয়ে আসছি এবং দুই দিনের রিমান্ড হয়েছে। কী কারণে উনি কথাগুলো বলেন, কী বিষয়ে উনার জ্ঞান রয়েছে- আমরা তার কাছে বারবার জিজ্ঞাসা করছি। উনি এখন বলছেন উনি বুঝতে পারেননি, উনি স্বপ্নে দেখেছেন।’

ডিবির এই যুগ্ম কমিশনার আরও বলেন, আমরা তাকে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করবো যে উনি কার প্ররোচনায় কার ইন্ধনে এসব বলছেন। উনার কথাগুলো শুনে মনে হচ্ছে জামাতের কাছ থেকে বিষয়গুলো নিয়ে উনি মানুষকে বিভ্রান্ত করছেন।

এর আগে বুধবার ইউটিউব, ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করে উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়ে আলোচিত-সমালোচিত মুফতি কাজী ইব্রাহীমের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

এরআগে সোমবার রাত ২টার দিকে রাজধানীর লালমাটিয়ার জাকির হোসেন রোডের বাসা থেকে তাকে আটক করে ডিবির একটি দল।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১

Back to top button