ফুটবল

রেকর্ড গড়ে রোনালদোর অনুরোধ

বয়সকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে উড়ছেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। ৩৬ বছর বয়সে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে ফিরে রীতিমতো আগুন ঝরাচ্ছেন। জোড়া গোল দিয়ে ম্যান ইউয়ের জার্সিতে ‘দ্বিতীয়’ অভিষেক, এরপর একের পর এক ম্যাচে নিজের ছাপ রেখে চলেছেন। সবশেষ ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগ ম্যাচে শেষ সময়ের গোলে ইংলিশ ক্লাবকে উদ্ধার। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের এই ম্যাচ দিয়েই চ্যাম্পিয়নস লিগের সর্বোচ্চ ম্যাচের রেকর্ড গড়েছেন পর্তুগিজ যুবরাজ।

ভিয়ারিয়ালকে ২-১ গোলে হারিয়েছে ম্যান ইউ। পিছিয়ে পড়ে সমতায় ফেরা এবং দ্বিতীয়ার্ধের ইনজুরি টাইমের পঞ্চম মিনিটে লক্ষ্যভেদে নাটকীয় জয় এনে দিয়েছেন রোনালদো। চ্যাম্পিয়নস লিগ ইতিহাসের সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার উপলক্ষ তিনি রাঙিয়ে নিয়েছেন দুর্দান্ত গোলে। স্মরণীয় ম্যাচ কাটানোর পর ম্যান ইউ সমর্থকদের কাছে রোনালদোর অনুরোধ, তারা যেন মাঠে সবসময় সমর্থন দিয়ে যান দলকে।

ইয়াং বয়েজের বিপক্ষে ইকের কাসিয়াসের ১৭৭ ম্যাচের রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলেছিলেন রোনালদো। অপেক্ষা ছিল ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতার সর্বোচ্চ ম্যাচের তালিকায় এককভাবে শীর্ষে বসার। ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে মাঠে নেমে সেই রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী। আরেকটি রেকর্ডেও ভাগ বসিয়েছেন। চ্যাম্পিয়নস লিগে ৯০ মিনিটের পর গোল করে ম্যাচ জেতানোর তালিকায় ধরে ফেলেছেন সের্হিয়ো আগুয়েরোকে। দুজনই তিনবার করে ইনজুরি টাইমের গোলে নিশ্চিত করেছেন জয়।

রেকর্ড গড়া রোনালদো ম্যান ইউ সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, ‘আমরা খেলোয়াড়রা যারা আছি, আমরা নিজেদের কাজ, ভালো খেলার ও গোল করার চেষ্টা করি। কিন্তু মাঝেমধ্যে সেটা সম্ভব হয় না। এই জায়গাতেই ভক্তদের ভূমিকা রাখার জায়গা আছে। যখন দল কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যায়, তখন তাদের উৎসাহ দেওয়া জরুরি। আমি এই কারণেই এটা বলছি এবং তাদেরকে (সমর্থকদের) এই কাজটি করার জন্য বলছি। তারা আমাদের এগিয়ে চলার পথে অনুপ্রেরণা জোগায় এবং বিশ্বাস রাখতে সাহায্য করে।’

চ্যাম্পিয়নস লিগের সর্বোচ্চ ম্যাচের রেকর্ড গড়ে আনন্দিত রোনালদো, ‘অবিশ্বাস্য! আরেকটি অধ্যায়, আরেকটি সুন্দর অধ্যায়। সত্যি আমি ভীষণ খুশি জয়সূচক গোলটি করতে পেরে, বিশেষভাবে যেভাবে গোলটি করেছি। সর্বোচ্চ ম্যাচ ও গোল, দুর্দান্ত একটি রাত।’

সূত্র : বাংলা ট্রিবিউন
এন এইচ, ৩০ সেপ্টেম্বর

Back to top button