এশিয়া

চীনে বিদ্যুৎ বিভ্রাটে জনজীবনে ভোগান্তি

বেইজিং, ২৮ সেপ্টেম্বর – চীনের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশগুলোতে গত কয়েকদিন ধরে বড় রকমের বিদ্যুৎ সঙ্কট চলছে।

বিবিসির খবর বলা হয়েছে, বিদ্যুৎ ঘাটতির কারণে কিছু কিছু এলাকায় হাসপাতাল ও কারাখানার মতো জরুরি স্থাপনায় বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করতে কর্তৃপক্ষকে হিমশিম খেতে হচ্ছে। অনেক বাসা বাড়িতেও এখন বিদ্যুৎ নেই।

গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়েছে, কল কারখানার পাশাপাশি লাখ লাখ মানুষ গত কয়েকদিন ধরে বিদ্যুৎ ছাড়াই বসবাস করছে। লিয়াওনিং, জিলিন এবং হেইলংজিয়াং প্রদেশের বাসিন্দারা সোশাল মিডিয়া ওয়েইবোতে এই সঙ্কটের ব্যাপারে সরব হয়েছেন। তাদের অভিযোগ, বাড়িতে হিটিং চলছে না, ভবনের লিফ্ট বন্ধ, এমনকি রাস্তার ট্রাফিক লাইটও ঠিক মতো কাজ করছে না।

চীনের কিছু কর্মকর্তা ও স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে বলা হচ্ছে, কয়লার দাম বেড়ে যাওয়ায় এর সরবরাহে ঘাটতি দেখা দিয়েছে।

সম্প্রতি জাতিসংঘে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং কয়লার ব্যবহার কমানোর অঙ্গীকার করেছেন। বিদ্যুতের জন্য চীন কয়লার ওপর অতিমাত্রায় নির্ভরশীল। এর ফলে স্থানীয় সরকারগুলোর ওপর চাপ তৈরি হচ্ছে।

বিবিসির খবর অনুসারে, চীনের কারখানাগুলোতে সর্বপ্রথম বিদ্যুতের ঘাটতি দেখা দেয়। এরপর বিভিন্ন শহরের বাসা বাড়িতে বিদ্যুতের সঙ্কট দেখা দেয়।

তবে সঠিক কত পরিসরে বিদ্যুতের সঙ্কট তৈরি হয়েছে সেটা পরিষ্কার না হলেো যে তিনটি প্রদেশে বিদ্যুতের ঘাটতি প্রকট, সেগুলোতে ১০ কোটি মানুষের বাস।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কিছু ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। এর মধ্যে একটিতে দেখা যায়, শেনিয়াংয়ের রাস্তার বাতি বন্ধ করে রাখায় সম্পূর্ণ অন্ধকারের মধ্যে ব্যস্ত একটি হাইওয়ের একপাশ দিয়ে গাড়ি চলছে। এই পরিস্থিতিকে পার্শ্ববর্তী উত্তর কোরিয়ার সঙ্গেও তুলনা করা হচ্ছে।

সূত্র: যুগান্তর
এম ইউ/২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

Back to top button