ঢালিউড

চিত্রনায়িকা পরীমণির নতুন বাসা কোথায়?

ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর – দীর্ঘ ২৭ দিনের কারাবাসের পর বনানীর লেকভিউয়ের বাসায় ফিরেই বাড়ি ছাড়ার নোটিশ পান চিত্রনায়িকা পরীমণি। দুই-তিন মাসের মধ্যেই নতুন বাসায় উঠার কথা ছিলো তার। তবে এতটা সময় নেননি! মাস না ফুরাতেই গেলো ২০ সেপ্টেম্বর এলো তার ‌‘বাসা বদলের’ খবর।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর, নতুন ফ্ল্যাটে উঠেছেন পরীমণি। এখন প্রশ্ন, পরীমণির নতুন বাসাটি কোথায়? কোন এলাকায় নতুন বাসা নিলেন নায়িকা? পরীর চতুর জবাব, ‘ঢাকাতেই আছি।’

সংবাদমাধ্যমগুলোর দাবি, নতুন ইন্টেরিয়রে বেশ কিছু ছবি নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে পোস্ট করেছেন পরীমণি। লাল জামার সঙ্গে মিলিয়ে লাল জুতা পরেছেন তিনি। মাথার চুল দুইভাগ করে ঝুটি করা। সেখানে তাকে বেশ উচ্ছ্বসিত দেখাচ্ছে। ছবিগুলো তিনি পোস্ট করেছেন ‘মাই সুইট হোম’ নামের অ্যালবামে।

ক্যাপশনে ইংরেজিতে লিখেছেন- ‘love the life you live. live the life you love.’ যার বাংলা অর্থ দাঁড়ায়- ‘যে জীবন যাপন করছো তাকে ভালোবাসো। যে জীবন ভালোবাসো সেভাবে বাঁচো।’ এমন ছবির একটাই বার্তা বহন করে, বাসা বদল করেছেন পরী। মূলত সেই সূত্রেই খবরটি হয়।

অবশ্য বাসা পাল্টালেও নতুন ঠিকানা লুকানোরই কথা। কেননা গত কয়েক মাস তার বাসার ভেতরে-বাইরে র‌্যাব, পুলিশ, সাংবাদিক, ভক্ত আর শত্রুদের আনাগোনায় মুখর ছিলো। ফলে পরীর পাশাপাশি সেখানে বসবাসকারী অন্যান্য পরিবারগুলোও বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন।

জেল থেকে ফিরেই পরী জানিয়েছিলেন, ‘আমার বাসাটি ১৭ কোটি বাংলাদেশি চেনেন। সম্ভবত বিদেশি সংবাদমাধ্যমগুলোও চেনে। তাহলে একটু অনুভব করুন, আমি এই বাসাটিতে কতটা নিরাপদে বা স্বস্তিতে আছি। আমার জন্য বিল্ডিংয়ের অন্যদেরও স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হচ্ছে।’

একটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে উল্লেখ করা হয়েছে, তাদের অনুসন্ধানে নিশ্চিত হওয়া গেছে পরী রাজধানীর বনানীতেই আছেন। তবে নতুন বাসার ঠিকানার বিষয়টি অস্পষ্ট।

বাসা পরিবর্তনের বিষয়টি স্পষ্ট করতে পরী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি আর আমার বাসা নিয়ে কোনও গোলমাল চাই না। আমি যেখানে আছি নিরিবিলি ও নিরাপদে থাকতে চাই। সামনেই নতুন চ্যালেঞ্জ, ওস্তাদের (গিয়াস উদ্দিন সেলিম) নতুন ছবির রাবেয়া চরিত্রটি নিয়ে। আমি আপাতত রাবেয়াতে ডুবে আছি। এটাও বলে রাখি, নতুন বা পুরনো বাসা নিয়ে আমি কিন্তু রিসেন্টলি কোথাও কোনও স্টেটমেন্ট দিইনি। সো এ বিষয়ে আমাকে জ্বালাবেন না।’

এন এইচ, ২৩ সেপ্টেম্বর

Back to top button