ক্রিকেট

১৫৫ রানেই অলআউট টাইগার যুবারা

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর – ৩-১ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডেতে জিতে সিরিজ ৪-১ ব্যবধানে শেষ করতে চায় টাইগার যুবারা। সেইলক্ষ্যে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ রোববার সকালে টস জিতে আগে ব্যাটিং করতে নেমে পুরো পঞ্চাশ ওভার খেলতে পারেনি টাইগাররা। অলআউট হয়ে গেছে ১৫৫ রানেই।

শুরুটা ভালো করলেও আগফান বোলিং তোপের মুখে বিশ ওভার না হতেই অর্ধেকটা হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়ে স্বাগতিকরা। ৬৪ রান তুলতেই পাঁচ উইকেট খোয়ায় টাইগার যুবারা। পরে আবদুল্লাহ আল মামুনের দৃঢ়তায় দেড়শ ছাড়ায় দলীয় স্কোর। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৭ রান আসে মামুনের ব্যাট থেকে। সাত নম্বরে নেমে দলের বিপর্যয়ে দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়ে ৮২টি বল মোকাবেলায় একটি করে ছয়-চারে ওই রান করেন তিনি।

এইসঙ্গে অষ্টম উইকেট জুটিতে নাঈমুর রহমানকে নিয়ে গড়েন অনবদ্য ৪৭ রানের জুটি। যাতে যুবা স্পিনারের অবদান ৪৯ বলে ১৬ রান। মূলত এই দুজনের কল্যাণেই দেড়শ পেরোয় বাংলাদেশ।

তাঁর আগে অবশ্য শুভ সূচনাই করেছিলেন দুই ওপেনার মাহফিজুল ইসলাম ও ইফতেখার হোসাইন। ১২ ওভারের ওপেনিং জুটিতে ৪৮ রান তুলে বিচ্ছিন্ন হন দুজনেই। মাহফিজুল ১১ রান করে নানগেয়ালিয়ার শিকার হয়ে ফিরলে ২৬ রান করা তাঁর সঙ্গী ইফতেখারও ফেরেন একটু পরেই। অপর প্রান্ত থেকে একে একে তিনটি উইকেট তুলে নেন বিলাল সামি। যাতে ৬৪ রান তুলেতেই অর্ধেকটা হারিয়ে বিপাকে বাংলাদেশ।

আফগানদের পক্ষে ৩টি করে উইকেট নিয়ে টাইগারদের ধসিয়ে দেন বিলাল সামি ও নানগেয়ালিয়া খোরাটে। আর দুটি করে উইকেট তুলে নেন ইজহারুল হক নাভীদ ও শহিদুল্লাহ হাসানি।

এর আগে সিরিজের প্রথম তিন ম্যাচই জিতে নেয় বাংলাদেশের যুবারা। প্রথম ম্যাচটি ১৬ রানে, দ্বিতীয়টি ৩ উইকেটে এবং তৃতীয়টি ১২১ রানে জিতেছিলো বাংলাদেশ। ফলে দুই ম্যাচ বাকী রেখেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করে স্বাগতিকরা।

তবে চতুর্থ ম্যাচে এসে সিরিজের প্রথম জয় পায় আফগানিস্তান। ১৯ রানে ম্যাচ জিতে তারা। ঐ ম্যাচে ‘মানকাড’ কাণ্ডের কারণে শেষ ম্যাচে আত্মবিশ্বাস পাচ্ছে বাংলাদেশ দল। আজ সকাল ৯টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

ওই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ২১০ রান করেছিলো বাংলাদেশ। এরপর ৪৪.২ ওভারে ১৯১ রান করে অলআউট হয় বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের ব্যাটিং ইনিংসে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে নন-স্ট্রাইক প্রান্তে ছিলেন মুশফিক হাসান। আর তখনই দুভার্গ্যক্রমে ঘটে যায় ‘মানকাড’ কাণ্ড। ‘মানকাড’ আউট হন মুশফিক। তবে অন্যপ্রান্তে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই ব্যাট করে দলকে টানা চতুর্থ জয়ের দিকেই নিয়ে যাচ্ছিলেন তাহজিবুল ইসলাম। শেষ পর্যন্ত ৭৫ বলে অনবদ্য ৫০ রান করে অপরাজিত থাকেন এই উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান।

একইসঙ্গে ‘মানকাড’ কাণ্ডের কারণে আফগানিস্তানকে হোয়াইটওয়াশের সুযোগ হাতছাড়া হয় বাংলাদেশের।

এদিকে, পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শেষে দু’দল ২২ সেপ্টেম্বর থেকে সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে একটি চারদিনের ম্যাচে।

সূত্রঃ একুশে

আর আই

Back to top button