ফুটবল

বাবা হারালেন ম্যানসিটি ডিফেন্ডার

আনন্দ আর বিষাদে ভরা এক রাত কাটল নাথান আকের। ম্যানচেস্টার সিটির এই ডিফেন্ডার বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) প্রথম চ্যাম্পিয়নস লিগ গোল করলেন, কয়েক মিনিট পর না ফেরার দেশে চলে গেলেন তার বাবা। ম্যাচ শেষে আবেগঘন পোস্ট দিয়ে বাবার মৃত্যুর খবর জানান ২৬ বছর বয়সী ডিফেন্ডার।

আরবি লাইপজিগের বিপক্ষে ১৬তম মিনিটে দুর্দান্ত হেডে গোল করেন আকে। ইউরোপ সেরার প্রতিযোগিতায় প্রথমবার গোল করে সতীর্থদের সঙ্গে উল্লাসে মাতেন তিনি। কঠিন লড়াইয়ের পর সিটিজেনরা জেতে ৬-৩ গোলে। কিন্তু বাবা মারা যাওয়ায় প্রথম গোল ও জয়ের আনন্দ মাটি হয়ে যায় আকের।

নেদারল্যান্ডসের এই আন্তর্জাতিক ফুটবলার এই গোল ও জয় তার বাবাকে উৎসর্গ করেছেন, যিনি ছেলেকে খেলতে দেখে গর্বিত ছিলেন। ইনস্টাগ্রামে আকে লিখেছেন, ‘গত কয়েক সপ্তাহ ছিল আমার জীবনের সবচেয়ে কঠিন সময়। আমার বাবা খুব অসুস্থ ছিলেন এবং কোনো চিকিৎসাতে কাজ হচ্ছিল না। আমি সৌভাগ্যবান যে আমার বাগদত্তা, পরিবার ও বন্ধুদের কাছ থেকে অনেক সমর্থন পেয়েছি। গতকাল একটা কঠিন সময়ের পর আমি চ্যাম্পিয়নস লিগে প্রথম গোল করলাম এবং তার কয়েক মিনিট পর আমার মা ও ভাইকে পাশে রেখে বাবা শান্তিতে চিরবিদায় নিয়েছে। আমাকে খেলতে দেখে সবসময় সে গর্ববোধ করত এবং খুশি হতো। আমি জানি তুমি সবসময় আমার সঙ্গে আছ, আমার হৃদয়ে সবসময় থাকবে এবং এটা (প্রথম গোল) তোমার জন্য ছিল বাবা।’

নেদারল্যান্ডসের হেগে জন্ম নিয়েছেন আকে। তার বাবা ছিলেন আইভরি কোস্টের। ২০১০ সালে ১৫ বছর বয়সে ফেনুর্ড থেকে চেলসির বিখ্যাত অ্যাকাডেমিতে যোগ দেন আকে। ‍মূল দলের হয়ে সাত লিগ ম্যাচ খেলার পর আরও কয়েকটি ইংলিশ ক্লাবে পা পড়েছিল। সবশেষ গত বছর এএফসি বোর্নমাউথ থেকে ম্যানসিটিতে আসেন তিনি।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এন এইচ, ১৭ সেপ্টেম্বর

Back to top button