জাতীয়

জাতীয় সংসদের চতুর্দশ অধিবেশন সমাপ্ত

ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর – জাতীয় সংসদের চতুর্দশ অধিবেশন আজ বৃহস্পতিবার শেষ হয়েছে। সংবিধান অনুযায়ি অধিবেশন সমাপ্তি সংক্রান্ত রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের ঘোষণা পাঠ করে শোনানোর মাধ্যমে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অধিবেশন সমাপ্তির ঘোষণা দেন।

রেওয়াজ অনুযায়ী অধিবেশনের শেষ কার্যদিবসে সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমাপনি ভাষণ দেন। এ ছাড়া বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদেরও শেষ কার্য দিবসে বক্তৃতা করেন।

অধিবেশন সমাপ্তি ঘোষণার আগে ১৯৭১ সালের ২১ ফেব্রুয়ারিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেয়া ভাষণের অডিও প্রচার ও ভিডিও প্রদর্শন করা হয়।

গত ১ সেপ্টেম্বর শুরু হওয়া এ অধিবেশন আজ পর্যন্ত মোট ৭ কার্য দিবস চালানো হয়। এ অধিবেশনে ৯টি বিল পাস হয়। আইন প্রণয়ন সম্পর্কিত কার্য সম্পাদনের পাশাপাশি কার্যপ্রণালী-বিধির ৭১ বিধিতে ৩২টি নোটিশ পাওয়া যায়। প্রধানমন্ত্রীর উত্তর দানের জন্য সর্বমোট ২৪টি প্রশ্ন পাওয়া যায়। তার মধ্যে তিনি ১৬টি প্রশ্নের উত্তর দেন। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীদের উত্তর দানের জন্য প্রাপ্ত মোট ৫৮৪টি প্রশ্নের মধ্যে মন্ত্রীগণ ৩৮৯টি প্রশ্নের জবাব দেন।

সমাপনি ভাষণে স্পিকার বলেন, সংসদের সকল কর্মকান্ড পরিচালিত হয় সংবিধান, কার্যপ্রণালী বিধি ও সংসদীয় রীতিনীতি অনুসরণ করে। সংসদ পরিচালনায় সংসদ-সদস্যগণের সহযোগিতা একান্ত অপরিহার্য। এ অধিবেশনের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনায় সংসদ সদস্যদের সর্বাত্মক সহযোগিতার জন্য স্পিকার আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। এ সহযোগিতা তাঁকে সংসদ পরিচালনায় উদ্যম ও শক্তি যুগিয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তিনি স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী অর্থাৎ এই মুজিববর্ষে তাঁর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানান।

তিনি সকলে মিলে সংসদীয় গণতন্ত্রের অব্যাহত অগ্রযাত্রা সুসংহত করার মধ্য দিয়ে দেশের সার্বিক উন্নয়ন নিশ্চিত করে আইনের শাসন, স্বচছতা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে এ সংসদকে সমগ্র বিশ্বের সংসদীয় গণতন্ত্রের মাঝে একটি অনুকরণীয় মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার আহবান জানান।

স্পিকার সংসদ অধিবেশন পরিচালনায় সহযোগিতা প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। এ জন্য তিনি সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। এ ছাড়া সংসদ উপনেতা, মন্ত্রিসভার সদস্যবৃন্দ, চিফ হুইপ ও হুইপবৃন্দ এবং সকল সংসদ-সদস্যগণের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। তিনি বিরোধীদলীয় নেতা ও বিরোধীদলীয় উপনেতার প্রতি সংসদ কার্যক্রমে সহযোগিতার জন্য আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এ ছাড়া ডেপুটি স্পিকার ও সভাপতিমন্ডলীর সদস্যবৃন্দকে তাঁদের সহযোগিতা ও পরামর্শের জন্য কৃতজ্ঞতা জানান। স্পিকার সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ, গণমাধ্যম কর্মীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

এরপর স্পিকার অধিবেশন সমাপ্তি সংক্রান্ত রাষ্ট্রপতির আদেশ পাঠ করে শোনান।

সূত্র : একুশে
এম এস, ১৬ সেপ্টেম্বর

Back to top button