শিক্ষা

জন্মসনদে টিকা নেওয়ার সুযোগ শিক্ষার্থীদের

ঢাকা, ১৪ সেপ্টেম্বর – শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, আমরা বিশ্ববিদ্যালয় খোলার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যসহ সংশ্লিষ্ট সংশ্লিষ্টদের সাথে বৈঠক করেছি। আমাদের অধিকাংশ শিক্ষক-শিক্ষার্থী কর্মচারী ইতোমধ্যে টিকার আওতায় এসেছেন। যারা টিকা নেননি একটি ডোজ হলেও তাদের দেওয়ার ব্যবস্থা করার অনুরোধ জানিয়েছেন উপাচার্যরা। আমরা সেটার ভিত্তিতে আগামী ১৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সেটির ব্যবস্থা করছি।

এজন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারী সবাইকে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে করোনা প্রতিরোধী টিকার জন্য সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন সম্পন্ন করতে হবে। নিবন্ধন সম্পন্ন হলে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল সেন্টারে গিয়ে টিকা নিতে পারবেন, আবার যে যেখানে আছেন স্থানীয় টিকাকেন্দ্রে গিয়েও টিকা নিতে পারবেন। আর সিন্ডিকেট ও অ্যাকাডেমিক কাউন্সিল সিদ্ধান্ত নিয়ে ২৭ সেপ্টেম্বরের পরে যেকোনও দিন বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিতে পারবে।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) ইডেন মহিলা কলেজে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ অনুষ্ঠান ও নতুন ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, টিকাগ্রহণে যাতে কোন সমস্যা না হয় সেজন্য যেসব শিক্ষার্থীর এনআইডি আছে অথচ টিকা নেননি তারা ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সুরক্ষা অ্যাপে টিকার নিবন্ধন সম্পন্ন করে টিকা নেবেন। আর যেসব শিক্ষার্থীদের এনআইডি নেই তারা জন্মসনদ ব্যবহার করে নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপরীতে শিক্ষার্থী হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) ওয়েবলিংকে প্রবেশ করে শিক্ষার্থী নিবন্ধন সম্পন্ন করবেন। শিক্ষার্থী নিবন্ধন সম্পন্ন করার পর সুরক্ষা অ্যাপে টিকার নিবন্ধন সম্পন্ন করবেন।

আর যাদের জন্মসনদও নেই তারা আগের জন্মসনদ করে নিয়ে তারপর শিক্ষার্থী নিবন্ধন সম্পন্ন করবেন। শিক্ষার্থী নিবন্ধনের পর সুরক্ষা অ্যাপে টিকার নিবন্ধন করে টিকা নিতে হবে। আগামী ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বাধ্যতামূলকভাবে সবাইকে শিক্ষার্থী নিবন্ধন সম্পন্ন করে টিকার নিবন্ধন সম্পন্ন করতে হবে।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের টিকার নিবন্ধন সম্পন্ন করতে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) ওয়েবলিংকে প্রবেশ করে জন্মসনদ নম্বরসহ প্রয়োজনীয় তথ্য পূরণ করে শিক্ষার্থী হিসেবে নিবন্ধন করতে হবে। ইউজিসির এই লিংক সব বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ওয়েবসাইটে প্রকাশ করবে। এছাড়া শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটেও শিক্ষার্থী নিবন্ধন লিংক পাওয়া যাবে।

যদি কোনও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর বয়স ১৮ বছরের নিচে হয় সে ক্ষেত্রেও জন্ম সনদ ব্যবহার করে শিক্ষার্থী নিবন্ধন সম্পন্ন করে সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করতে পারবেন। টিকার নিবন্ধন সম্পন্ন করা শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল সেন্টারে গিয়ে টিকা নিতে পারবেন।

শিক্ষার্থীদের দ্রুত টিকা দেওয়া সম্পন্ন করতে কারিগরি সহায়তাসহ প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা স্বাস্থ্য অধিদফতরের পক্ষ থেকে নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

নিয়ম না মানলে কঠোর শাস্তি:

মন্ত্রী বলেন, যেসব প্রতিষ্ঠান খোলা হয়েছে সেগুলো স্থানীয় পর্যায়ে আমরা নজরদারি করছি। তবে শিক্ষকরা যদি সচেতন না হয় তাহলে কিছুই হবে না। কোনো প্রতিষ্ঠান যদি নিয়ম না মানে আমরা সে প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেবো। সেটা স্কুল বা মাদ্রাসা যাই হোক। বার বার কোনো প্রতিষ্ঠানের অবহেলা মেনে নেওয়া হবে না। অবশ্যই তাদের শাস্তি পেতে হবে।

সূত্র : রাইজিংবিডি
এম এস, ১৪ সেপ্টেম্বর

Back to top button