শিক্ষা

সশরীরে পরীক্ষা নিচ্ছে পটুয়াখালী বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়

পটুয়াখালী, ১৩ সেপ্টেম্বর – করোনাকালে পটুয়াখালী বিজ্ঞান প্রযু‌ক্তি বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ে রেগুলার সেমিস্টারের জন্য প্রথমবারের মতো সশরীরে পরীক্ষা চল‌ছে। যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ‌নিবার (১১ সেপ্টেম্বর) থেকে পরীক্ষা শুরু হয়ে‌ছে। ত‌বে আবাসিক হল বন্ধ থাক‌বে। শিক্ষার্থীরা হ‌লের বাই‌রে অবস্থান কর‌বে।

করোনা মহামারির কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণার পর দুই ধাপে চূডান্ত পরীক্ষা নেওয়ার উদ্যোগ গ্রহন করা হয়। সে অনুযায়ী অনলাইনে গুরুত্বপূর্ন পরীক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়েছিল। পরে আবারও করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় সব পরীক্ষা স্থগিত করে বিশ্ব‌বিদ্যালয় প্রশাসন।

পরীক্ষা উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তপক্ষ স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা, বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক পরিধান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে যথাযথ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, প্রত্যেক ভবনে প্রবেশের আগে সাবান পানি দিয়ে হাত ধোয়া, পরীক্ষা শুরুর আগে হল রুম যথাযথভাবে স্যানিটাইজ করা।

এছাড়াও পরীক্ষার হলে সংরক্ষিত হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে শিক্ষার্থীদের হাত জীবাণুমুক্ত করা, পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর শিক্ষার্থীদের যত দ্রæত সম্ভব ক্যাম্পাস ত্যাগ করা। নিষিদ্ধ করা হয়েছে ক্যাম্পাসে অযথা আড্ডা ও গণজমায়েত। যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মানাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি টিম মাঠে কাজ করবে।

খোলার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়গু‌লো ইতোমধ্যে একটি পথরেখা ঠিক করেছে। পথরেখা অনুযায়ী ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব শিক্ষার্থীকে টিকা নিতে বলা হয়েছে। এরপর অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল খুলে দেওয়া। সেই পথরেখা অনুযায়ী, ১৫ সেপ্টেম্বরের পর টিকা নেওয়ার তথ্য দেখে হল খোলার সুনির্দিষ্ট তারিখ ঘোষণা করা হবে।

কিন্তু দীর্ঘ দেড় বছর ধরে বন্ধের পর ১২ সেপ্টেম্বর থেকে দেশের প্রাথমিক থেকে উচ্চমাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তের পর এখন বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীর ক্লাসের সময়ও এগিয়ে আনা হবে। পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী, ১৫ অক্টোবরের পর থেকে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার কথা বলা হয়েছিল। বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সময় এগিয়ে আনা হতে পারে।

প‌বিপ্র‌বির প্রক্টর অধ্যাপক ড. স‌ন্তোষ কুমার বসু বলেন, ক্যাম্পাসে সশরীরে রিটেক পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে। তবে শনিবার থেকে বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ে রেগুলার সেমিস্টারের জন্য প্রথম বারের মতো সশরীরে পরীক্ষা শুরু হয়ে‌ছে। পর্যায়ক্রমে ধাপে ধাপে এই পরীক্ষার কার্যক্রম আরো বড় পরিসওে হবে। শিক্ষার্থীরা হলের বাইরে থেকে পরীক্ষায় অংশ নিবে।

প‌বিপ্র‌বির রে‌জিস্ট্রারের অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা উপ-রেজিস্ট্রার ড. মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম বলেন, ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব শিক্ষার্থীকে টিকা নিতে বলা হয়েছে। সে অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তত ৮৫ভাগ শিক্ষার্থী টিকা নিয়েছে। সেই তথ্য বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে পাঠানো হবে। কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী পরবর্তীতে পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।

প‌বিপ্র‌বির ছাত্র বিষয়ক উপ‌দেষ্টা অধ্যাপক আ, ক , ম মোস্তফা জামান বলেন, করোনাকালে পটুয়াখালীর সিভিল সার্জন অফিসে গিয়ে শিক্ষার্থীরা টিকা নিয়েছে। তাছাড়া স্বাস্থ্য বিভাগের পরিসংখ্যান বলছে, করোনা সংক্রমনের হার দিনদিন কমে আসছে। এমন পরিস্থিতি বিরাজ করলে এ মাসেই বিশ্ববিদ্যালয়গুলো সরকার খুলে দিতে পারে।

পবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. স্ব‌দেশ চন্দ্র সামন্ত বলেন, স্বাস্থ্য বিভাগের করোনা সংক্রমনের হার বিবেচনায় রেখে বিশ্ববিদ্যালগুলো খুলে দেয়ার ব্যাপারে পদক্ষেপ গ্রহন করবে। সে অনুযায়ী নির্দেশনা মতে আমরা বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিবো। তবে এখন পর্যন্ত শিক্ষামন্ত্রনালয় বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেয়ার ব্যাপারে উপাচার্যদেও নিয়ে কোন সভা করেননি। তবে বিশ্ববিদ্যালয় খুব দ্রুত খুলে দেয়া হবে, এমনটি ভেবেই আমরা এই প্রথম সশরীরে পরীক্ষা গ্রহনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পর্যায়ক্রমে ধাপে ধাপে বড় ফ্যাকাল্টিগুলো পরীক্ষা নেয়া হবে।

সূত্র : কালের কণ্ঠ
এন এইচ, ১৩ সেপ্টেম্বর

Back to top button