বলিউড

নিজেকে আয়নায় দেখে ভয় পেতেন কারিনা

মুম্বাই, ১১ সেপ্টেম্বর – প্রেগন্যান্সি কোনো ট্যাবু নয়, গোটা দেশের কাছে এই উদাহরণ পেশ করেছেন কারিনা কাপুর খান। প্রেগন্যান্সি নিয়ে প্রচলিত কুসংস্কার ভেঙে বলিউড অভিনেত্রীদের নতুন পথ দেখিয়েছেন তিনি।

এছাড়াও অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় নায়িকারা ঘরে লুকিয়ে থাকবেন, শুটিং ফ্লোরে যাবেন না, ব়্যাম্পে হাঁটবেন না- এসব মিথ ভেঙে গুড়িয়ে দিয়েছেন এই অভিনেত্রী।

সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে কারিনার লেখা বই ‘প্রেগন্যান্সি বাইবেল’। এতে মাতৃত্বকালীন বিভিন্ন বিষয় নিয়ে নিজের অভিজ্ঞতার কথা লিখেছেন এই অভিনেত্রী। এছাড়া নতুন মায়েদের জন্য একগুচ্ছ উপদেশ দিয়েছেন তিনি। ব্যক্ত করেছেন নিজের প্রেগন্যান্সি জার্নির অভিজ্ঞতা।

২০১৬ সালের আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজেকে আবিষ্কারের সেই মুহূর্তের কথা মনে করলে আজও শিউরে উঠেন জানিয়ে কারিনা বলেন, আমি ছিলাম ভীত, মোটা, ফোলা এবং ক্লান্ত। আমি লক্ষ্য করেছিলাম আমার স্ফীত পেট, ডার্ক সার্কেল, সি-সেকশনের সেই ড্রেসিং ব্যান্ডেজগুলো… আমার কি অনুভূতি ছিল তা ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না।

সম্প্রতি এক ব্রিটিশ দৈনিককে দেয়া সাক্ষাৎকারে কারিনা জানান, বলিউড অভিনেত্রীরা যখন অন্তঃসত্ত্বা হন, তখন তারা বাড়ির বাইরে আসেন না। কারণ নিজেদের ফিগার থেকে লুকস নিয়ে তারা সচেতন হয়ে পড়েন। কারণ তাদের হয়তো গ্ল্যামারাস দেখাবে না, হয়তো তাদের দেহে মেদ জন্মে গেছে, সেই দেখে মানুষ নানা মন্তব্য করবে, এইগুলো বিরাট বড় ট্যাবু ভারতে। তবে আমি ঠিক করেছিলাম, নিজের রাস্তা নিজেই তৈরি করব।

প্রসঙ্গত, প্রথমবার মা হওয়ার সময় কারিনা কাপুর ছবির কাজে নিজেকে রীতিমতো ব্যস্ত রেখেছিলেন। এমনকি গর্ভবতী অবস্থায়ও মনীশ মালহোত্রার ডিজাইন করা জমকালো লেহেঙ্গা-চোলি পরে ল্যাকমের ফ্যাশন মঞ্চ আলো করেছিলেন। কখনোই তিনি তার মাতৃত্বকে সবার কাছ থেকে আড়াল করতে চাননি।

জানা গেছে, এবারও ফটোশুটের পাশাপাশি ছবি সংশ্লিষ্ট নানা কাজে ব্যস্ত ছিলেন বলিউডের এই নবাবপত্নী।

কিছুদিন আগে জানা যায়, সাইফ-কারিনা তাদের ছোট ছেলেকে সংক্ষেপে ‘জেহ’ নামে ডাকেন।

নিজের লেখা ‘প্রেগন্যান্সি বাইবেল’ বইয়ে কারিনা জানিয়েছেন, ছোট ছেলের নাম রাখা হয়েছে জাহাঙ্গীর আলী খান। এই বইয়ের শেষ পাতায় ছোট ছেলের ছবিও প্রকাশ করেছেন তিনি।

এন এইচ, ১১ সেপ্টেম্বর

Back to top button