মধ্যপ্রাচ্য

তালেবান সরকার নিয়ে যা বলল সৌদি আরব

রিয়াদ, ০৯ সেপ্টেম্বর – কাবুল দখলের তিন সপ্তাহ পর মঙ্গলবার আফগানিস্তানের অন্তর্বর্তীকালীন সরকার ঘোষণা করেছে তালেবান। সৌদি আরব বলছে, সরকার গঠনের মাধ্যমে দেশটি স্থিতিশীলতার দিকে যাবে। তালেবান সরকার আফগানিস্তানের জনগণের জানমাল রক্ষার জন্য কাজ করবে।

বৃহস্পতিবার সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রী প্রিন্স ফয়সল বিন ফারহান মন্ত্রীসভার এক ভার্চুয়াল বৈঠকে বলেন, তালেবানসহ আফগানিস্তানের সকল পার্টি শান্তিশৃঙ্খলা এবং নাগরিকদের জানমালের নিরাপত্তা রক্ষার্থে কাজ করবে। আফগানিস্তানের কেয়ারটেকার সরকার সহিংসতা চরমপন্থা দূর করে দেশটিকে নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতার দিকে নিয়ে যাবে।

আফগান জনগণ ও তাদের পছন্দকৃত ব্যবস্থার প্রতি সৌদির সমর্থন রয়েছে উল্লেখ করে প্রিন্স ফয়সল বলেন, বর্তমান আফগানিস্তানে যে চ্যালেঞ্জগুলো রয়েছে সৌদি আরব সেগুলো মোকাবেলা করাকে গুরুত্ব দিচ্ছে।

পশ্চিমা বিশ্ব তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেওয়া নিয়ে ‘ধীরে চলা’ অনুসরণ করছে। যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্রসহ ইউরোপীয় ইউনিয়ন বলছে, তারা তালেবানের কর্মকাণ্ড দেখে তারপর সিদ্ধান্ত নেবেন।

চীন ইতোমধ্যে তালেবান সরকারের সঙ্গে বন্ধুত্বমূলক সম্পর্ক গঠনের কথা জানিয়েছে। তালেবান সরকার গঠনের পরই আফগানিস্তানে ৩ কোটি ১০ লাখ ডলার জরুরি সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে চীন।

অন্যদিকে, পাকিস্তানের নেতৃত্বে আফগানিস্তানের প্রতিবেশী দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে অংশ নেয় ইরান, তাজিকিস্তান, উজবেকিস্তান, ও তুর্কেমিস্তানসহ ৬টি দেশ। আফগানিস্তানের প্রতিবেশী এই দেশটি তালেবান সরকারের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ে কাজ করছে।

সূত্র : যুগান্তর
এন এইচ, ০৯ সেপ্টেম্বর

Back to top button