দক্ষিণ এশিয়া

এবার কান্দাহার দখলের দাবি তালেবানের

কাবুল, ১৩ আগস্ট – আফগানিস্তানের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর কান্দাহারের দখল নিয়েছে উগ্রবাদী গোষ্ঠী তালেবান। শুক্রবার (১৩ আগস্ট) আফগান পার্লামেন্টের সদস্য গুল আহমেদ কামিন সংবাদমাধ্যমে এ তথ্য জানান। এছাড়া তালেবানও এক বিবৃতিতে শহর দখলের দাবি জানায়। শেষ খবরে জানা গেছে, একইদিন শুক্রবার দেশটির হেলমান্দ প্রদেশের রাজধানী লস্করগাহও দখল করে নিয়েছে উগ্রবাদী গোষ্ঠীটি।

গত ২০ বছর ধরে মার্কিন সেনাদের অন্যতম বৃহত্তম ঘাঁটি ছিল কান্দাহার শহরে। কয়েক সপ্তাহ ধরে এ শহর দখলের জন্য তীব্র আক্রমণ চালিয়ে আসছিল তালেবানরা। কান্দাহারের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার মাধ্যমে দেশটির রাজধানী কাবুল দখলের পথে সামরিক কৌশলগত দিক থেকে আরও অগ্রসর হলো তালেবানরা।

এক বিবৃতিতে তালেবান জানিয়েছে, কান্দাহারের সরকারি দফতর, প্রাদেশিক পুলিশ সদরদফতরসহ বহু গুরুত্বপূর্ণ ভবনের দখল নিয়েছে তারা। বিবৃতিতে বলা হয়, ‘সরকারি বাহিনীর শত শত অস্ত্র, গাড়ি ও বিস্ফোরক আমাদের দখলে রয়েছে’।

পার্লামেন্ট সদস্য গুল আহমেদ কামিন জানান, তিনিসহ বহু সেনা পিছু হঠে কান্দাহার শহরের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সংলগ্ন সামরিক ঘাঁটিতে অবস্থান করছেন। তারা শহর ছাড়ার জন্য বিমানের অপেক্ষা করছেন।

এক সপ্তাহ ধরে একের পর এক আফগান প্রাদেশিক শহরের পতন ঘটছে তালেবানের হাতে। এর আগে গত শুক্রবার (৬ আগস্ট) আফগানিস্তানের নিমরুজ প্রদেশের রাজধানী জারঞ্জ দখল করে নেয় তালেবান। এটিই তালেবান কর্তৃক প্রথম কোনো প্রাদেশিক রাজধানী দখলের ঘটনা। এর পর সপ্তাহ না পেরোতেই আফগানিস্তানের ৩৪টি প্রদেশের ১৪টির রাজধানী দখল করে নিয়েছে তালেবান। বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) মাত্র একদিনে গজনি, হেরাত ও কালা-ই-নাউ শহর দখল করে উগ্রবাদী গোষ্ঠীটি।

উল্লেখ্য, ২০০১ সালে মার্কিন নেতৃত্বাধীন বাহিনীর কাছে পরাজিত হওয়ার পর পুনরায় কঠোর শরিয়া আইন প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই শুরু করে তালেবান। দীর্ঘ ২০ বছর পর বিদেশি সেনাবাহিনী প্রত্যাহার করার পর ফের দেশ দখলের মরিয়া প্রচেষ্টা শুরু করেছে তালেবানরা।

সূত্র: সারা বাংলা
এম ইউ/১৩ আগস্ট ২০২১

Back to top button