ঢালিউড

পরীমনির প্রেম-বিয়ে-রিমান্ড প্রসঙ্গে যা বললেন তসলিমা

ঢাকা, ১২ আগস্ট – মাদক মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে এই মুহূর্তে রিমান্ডে রয়েছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনি। ইতিমধ্যেই তাকে দুই দফায় রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। এছাড়া মাদক মামলার বাইরেও এক পুলিশ কর্মকর্তার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে নিন্দিত হন এই অভিনেত্রী। চারিদিকে এখন তাকে নিয়েই চলছে নানা সমালোচনা ও বিতর্ক। সম্প্রতি এই বিষয়ে মুখ খুলেছেন বাংলাদেশের বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন।

গত মঙ্গলবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পরীমনিকে নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন এই লেখিকা। পোস্টে তসলিমা লিখেছেন, ‌‘পরীমনি সমাজের অধিকাংশ মেয়ের মতোই ভুল মানুষের প্রেমে পড়ে। এক সাংবাদিকের প্রেমে পড়েছিল, তাকেই বিয়ে করবে ঘোষণা করেছিল। শেষ মুহূর্তে সে বিয়েটা ভেঙে দিতে সে বাধ্য হলো। কারণ সেই সাংবাদিক পরীমণির সিনেমার নিন্দে করেছিল, তাকে সিনেমা করতে বাধা দিচ্ছিল। এমন লোককে বিয়ে না করার সিদ্ধান্তটি পরীমণি ঠিক নিয়েছিল।

এক পরিচালক তাকে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়ায় সে হুট করে এক রাতের নোটিশে বিয়ে করে ফেলেছিল তাকে, পরদিন টনক নড়ে, এ লোক তো সুবিধের নয়। শেষ পর্যন্ত বাধ্য হলো ছাড়তে। সুদর্শন এক পুলিশ অফিসারের প্রেমে সাড়া দিয়েছিল। অফিসারটি বলেছিল, সে অবিবাহিত। পরে যখন জানতে পারে সে বিবাহিত, পরীমনি সরে আসে। মেয়ে, তার ওপর সুন্দরী, তাকে যে কতভাবে পুরুষেরা এক্সপ্লয়েট করে!

এই যে তাকে রিমান্ডে নিচ্ছে দিনের পর দিন, রিমান্ডে তো শুনেছি মানুষকে প্রচণ্ড নির্যাতন করা হয়। রিমান্ডে নিয়ে পরীমনিকে তো মানসিক নির্যাতন করা হচ্ছেই, শারীরিক নির্যাতন করা হচ্ছে না তো?

উল্লেখ্য, গত ৪ আগস্ট সন্ধ্যায় বিপুল মাদকসহ পরীমনিকে তার বনানীর বাসা থেকে আটক করে র‌্যাব। তার বিরুদ্ধে বনানী থানায় মাদক আইনে মামলা হয়। সেই মামলায় প্রথমে নায়িকাকে চার দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। সেই মেয়াদ শেষ হওয়ায় মঙ্গলবার তাকে আরও দুই দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

এন এইচ, ১২ আগস্ট

Back to top button